1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. rj.nazmul2500@gmail.com : Nazmul Hossain : Nazmul Hossain
শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১০:১৫ পূর্বাহ্ন

ঈদের ছুটিতেও চলছে বন্দরের অপারেশনাল কার্যক্রম

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৬ মে, ২০২০
  • ১৫৭ বার

ঈদের ছুটিতেও চট্টগ্রাম বন্দরের অপারেশনাল কার্যক্রম স্বাভাবিক রয়েছে। শুধুমাত্র ঈদুল ফিতরের দিন সোমবার (২৫ মে) সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত বন্দরের ডেলিভারিসহ স্বাভাবিক কার্যক্রম বন্ধ ছিল।

মঙ্গলবার যথারীতি কনটেইনার স্থানান্তর, সংরক্ষণ, ডেলিভারি, কনটেইনার ও কার্গো হ্যান্ডলিংসহ সব কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে বলে জানিয়েছেন বন্দর সচিব মো. ওমর ফারুক।

তিনি বলেন, বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্যের কারণে চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। এরপরও সকাল থেকে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করে কনটেইনার ডেলিভারি স্বাভাবিক রয়েছে। সরকারি সাধারণ ছুটি ঘোষণাকালেও বন্দর কর্তৃপক্ষ প্রতিদিন ২৪ ঘণ্টা অপারেশনাল কার্যক্রম চালু রেখেছে। ঈদের ছুটিতে কনটেইনার ডেলিভারি স্বাভাবিক রাখতে আগেভাগেই স্টেক হোল্ডারদের চিঠি দেওয়া হয়।

বন্দর পরিবহন বিভাগ সূত্র জানায়, ঈদের ছুটির দিন এক পালা (৮ ঘণ্টা) কাজ চলেছে। এছাড়া সাপ্তাহিক ছুটি ও সরকারি ছুটির দিনগুলোতেও প্রতিদিন ২৪ ঘণ্টা অপারেশনাল ও ডেলিভারি কার্যক্রম সচল রাখা হয়েছে। এ লক্ষ্যে ব্যাংক, কাস্টম হাউস, অফডক, শিপিং এজেন্ট ও সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে অনুরোধ জানিয়ে চিঠি দেওয়া হয়। আমদানি পণ্যের ক্ষেত্রে অ্যাপ্রেইজমেন্ট বি/ই আউট পাসসহ সব ধরনের ডেলিভারি কার্যক্রমের জন্য কাস্টম হাউসের কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগ ও সার্বিক সুবিধা নিশ্চিত করার জন্য কাস্টম হাউস কমিশনারকে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

আমদানিকারকরা যাতে পণ্য ডেলিভারি নেওয়ার জন্য শিপিং এজেন্ট থেকে ডেলিভারি অর্ডার গ্রহণ করতে পারেন সে লক্ষ্যে শিপিং এজেন্ট এবং ফ্রেইট ফরওয়ার্ডাররা স্বাভাবিক নিয়মে অফিস খোলা রেখেছেন। ঈদের সময় যেসব সরাসরি ডেলিভারিযোগ্য পণ্যবাহী জাহাজ ছিল সেগুলোর পণ্য ডেলিভারির জন্য কাস্টম আউট পাসসহ ডকুমেন্ট তৈরি করে রাখে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশন।

এদিকে বন্দরের ভেতর থেকে ডেলিভারি নেওয়ার কাজে নিয়োজিত কনটেইনার বা পণ্যবাহী গাড়ি স্বাভাবিক নিয়মে চলাচল করেছে বলে জানা গেছে। বার্থ অপারেটর, টার্মিনাল অপারেটর ও শিপ হ্যান্ডলিং অপারেটররা প্রয়োজনীয় শ্রমিক নিয়োগ করে বন্দরের অপারেশনাল কার্যক্রম স্বাভাবিক রেখেছেন।

বিজিএমইএর আওতাধীন পোশাক শিল্পকারখানাসহ অন্যান্য সব কারখানা ও আমদানিকারকের ওয়্যার হাউস খোলা রেখে স্বাভাবিক সময়ের মতো ডেলিভারি নেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ।

এ জাতীয় আরো সংবাদ