1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. rj.nazmul2500@gmail.com : Nazmul Hossain : Nazmul Hossain
রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ০৮:৪২ অপরাহ্ন

পক্ষপাতিত্ব নিয়ে নির্বাচন পরিচালনা করি নাই, করবও না

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
  • ১৮৭ বার

পক্ষপাতিত্ব নিয়ে নির্বাচন অতীতে করেননি, ভবিষ্যতেও করবেন না বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা।

আজ শুক্রবার ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজে ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনের সরঞ্জাম বিতরণ কার্যক্রম দেখতে এসে তিনি এ কথা জানান করেন।

ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে নির্বাচন কমিশনের প্রতি রাজনৈতিক দলগুলোর আস্থা ফিরে আসবে কি না- এমন প্রশ্নে কে এম নূরুল হুদা বলেন, ‘এটা আমি বলতে পারব না। আস্থা-অনাস্থা তাদের মানসিকাতার ওপর, কে কীভাবে দেখে, সেটার ওপরে। আমরা কখনও কোনো পক্ষপাতিত্ব নিয়ে নির্বাচন পরিচালনা করি নাই, করবও না।’

তিনি বলেন, ‘দেখেন এই দেশে নির্বাচন কমিশনের প্রতি কোনো দিনও সব রাজনৈতিক দলের আস্থা ছিল- তা আমি দেখি নাই। সুতরাং একদল যারা ক্ষমতায় থাকবেন তাদের এক ধরনের বক্তব্য থাকবে, আবার যারা বাইরে থাকবেন তাদের কখনও আস্থা আসবে না নির্বাচন কমিশনের ওপরে, এরকম একটা পলিটিক্যাল কালচার হয়ে আসছে।’

আগামীকাল শনিবার অনুষ্ঠিতব্য ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে ভোটারদের ভোট দিতে যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে সিইসি বলেন, ‘আপনাদের (সাংবাদিকদের) মাধ্যমে ভোটারদের আহ্বান জানাব- আগামীকাল তারা যেন প্রত্যেকেই ভোটকেন্দ্র যান।’

তিনি বলেন, ‘ভোটারদের মধ্যে একটা উৎসবমুখর পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে এবং তাদের আস্থার সৃষ্টি হয়েছে বলে আমি মনে করি। আশা করি আগামীকালের নির্বাচন প্রতিযোগিতামূলকভাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে, অবাধ হবে, সুষ্ঠু হবে, নিরপেক্ষ হবে।’

কে এম নূরুল হুদা বলেন, ‘ইভিএমে ভোটদানের ব্যাপারে আমাদের প্রিজাইডিং অফিসার, সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার, পোলিং অফিসারদের যথেষ্ট প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। যেকোনো ধরনের সাহায্য সহযোগিতা তারা করবেন। ইভিএমে ভোট দিয়ে তারা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন, এই আহ্বান আমি ভোটারদের প্রতি জানাই।’

এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, ‘ভোটাররা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে, এটা এখন তারা মনে করে না বলে আমি মনে করি। নির্বাচন যখনই প্রতিযোগিতামূলক হয়, ভোটাররা বের হয়ে আসে।’

নির্বাচন সুষ্ঠু করতে নির্বাচন কমিশন নির্দেশনা দিয়েছে জানিয়ে নূরুল হুদা বলেন, ‘আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে আমরা বারবার বলেছি, তারা নিরপেক্ষ দৃষ্টিভঙ্গী নিয়ে দায়িত্ব পালন করবে। প্রিজাইডিং অফিসার, সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার, পোলিং অফিসারদের প্রশিক্ষণ দিয়েছি, বারবার বলেছি, সম্পূর্ণভাবে নিরপেক্ষ দৃষ্টিভঙ্গীতে তারা দায়িত্ব পালন করবে। জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট থাকবেন, তাদেরকেও সেরকম ইনস্ট্রাকশন দেওয়া আছে।’

এ জাতীয় আরো সংবাদ