1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. rj.nazmul2500@gmail.com : Nazmul Hossain : Nazmul Hossain
বুধবার, ১২ মে ২০২১, ০৪:৫৪ পূর্বাহ্ন

মুখের শ্বাস দিয়েও বাঁচাতে পারলেন না স্বামীকে

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২৬ এপ্রিল, ২০২১
  • ৫১ বার

নিঃশ্বাস ছোট হয়ে আসছে। অক্সিজেন পাচ্ছেন না। ক্রমেই শ্বাস ছোট হয়ে আসছে। স্ত্রীর সামনে স্বামী শ্বাস নিতে পারছে না, অক্সিজেন নিতে পারছে না। স্বামী ছোটফট করছেন- স্ত্রী কিভাবে সহ্য করেন। নিজের মুখ স্বামীর মুখে ডুবিয়ে অক্সিজেন দেওয়ার চেষ্টা করেন। স্ত্রী জানেন না তার মুখ থেকে অক্সিজেন যেতে পারে না, যাবে কার্বন ডাই অক্সাইড।

যখন প্রিয় মানুষটি মৃত্যুর যন্ত্রণায় ছটফট করতে থাকে তখন পৃথিবীর কোনো যুক্তিই মাথায় কাজ করে না। কোনোভাবেই যেন প্রিয় মানুষটি না চলে যায়। এমনই একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গেছে। স্বামীকে বাঁচাতে আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছেন স্ত্রী। এমন ছবি, এমন আকুলতা, এমন পরাজয় কার চোখের কোল সামলে রাখবে- সে বাঁধ ভেঙে যাবে, মনের সুউচ্চ দেয়াল টপকে হাহাকার বেরিয়ে আসবে, আসছে।

ঘটনাটি ভারতের উত্তর প্রদেশের আগ্রার। করোনা আক্রান্ত স্বামীকে একটি অটোরিকশায় চাপিয়ে হাসপাতাল নেওয়ার পথে স্ত্রী এভাবে স্বামীকে বাঁচিয়ে রাখার চেষ্টা করছিলেন। কিন্তু পারেননি, স্বামী সাড়া দেননি। মারা গেছেন।

এই ছবিটির ছড়িয়ে পড়ায় নানারকম প্রতিক্রিয়া হচ্ছে। সারাবিশ্ব ভারতের এই অবস্থার জন্য প্রার্থনা করছে।

ভারতে করোনা আক্রান্ত ও মৃত্যু আশঙ্কাজনকভাবে বাড়ছে। হঠাৎ যেন বিশ্বরেকর্ড ভাঙাগড়ার খেলায় মেতেছে ভারত। গত সপ্তাহে বিশ্বে প্রথমবারের মতো একদিনে তিন লাখ রোগী শনাক্ত হয়েছিল সেখানে। এবার সাড়ে তিন লাখ রোগী শনাক্তের মহারেকর্ডও নিজেদের করে নিল তারা।

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৩ লাখ ৫২ হাজার ৯৯১ জন করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন। এ সময় মারা গেছেন অন্তত ২ হাজার ৮১২ জন। ভারতীয় মেডিক্যাল গবেষণা কাউন্সিলের (আইসিএমআর) তথ্যমতে, গত রবিবার পর্যন্ত দেশটিতে মোট ২৭ কোটি ৯৩ লাখ ২১ হাজার ১৭৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে শুধু গতকালই পরীক্ষা হয়েছে ১৪ লাখ ২ হাজার ৩৬৭টি।

সাড়ে তিন লাখ নতুন আক্রান্তের জেরে ভারতে মোট আক্রান্ত হয়েছেন এক কোটি ৭৩ লাখ ১৩ হাজার ১৬৩ জন। এই সংখ্যক আক্রান্ত নিয়ে বিশ্বের দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ভারত। দেশের মোট মৃত্যুও এক লাখ ৯৫ হাজার ছাড়িয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমণের হার ২৫.১৭ শতাংশ। অর্থাৎ যে সংখ্যক মানুষের পরীক্ষা হয়েছে, তাঁদের মধ্যে প্রতি ৪ জনে এক জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে।

এ জাতীয় আরো সংবাদ