1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. rj.nazmul2500@gmail.com : Nazmul Hossain : Nazmul Hossain
বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ০৮:০৪ অপরাহ্ন

মুজিব বর্ষ বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি করছেন যুবলীগের জুবায়ের

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২৯ জুলাই, ২০২০
  • ২৩৭ বার

আমাদের দেশে মোট বনভূমির পরিমাণ মাত্র ৯-১০ শতাংশ, যেখানে একটি দেশের ২৫ শতাংশ বনভূমি থাকা দরকার। এই বনভূমি বাড়াতে সামাজিক বনায়ন রাখতে পারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা। উঠান, বনভূমি ও রাস্তার দুই পাশের গাছ সৌন্দর্যবর্ধনের পাশাপাশি দেশে জলবায়ু রক্ষায় রাখবে ভূমিকা। চুয়াডাঙ্গা সরকারী কলেজ প্রাঙ্গনে লটকন লাগান  যুবলীগের জুবায়ের আহমেদ। নিজে ৭০ তম গাছ লাগান চুয়াডাঙ্গা সরকারী কলেজ প্রাঙ্গনে।উপস্থিত ছিলেন সরকারী কলেজ এর উপাধ্যক্ষ ড. একে. এম. সাইফুর রশিদ, সহকারী অধ্যাপক, হিসাব বিজ্ঞান এর আবু বক্কর প্রমুখ। উপাধ্যক্ষ ড. একে. এম. সাইফুর রশিদ বলেন, এসো বৃক্ষরোপণ করি, আগামী প্রজন্মের জন্য সুন্দর ও নির্মল পরিবেশ গড়ি।
যুবলীগের জুবায়ের আহমেদ সাব্বির বলেন,জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবেলায় বৃক্ষরোপণ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। এই কর্মসূচি বাস্তবায়নে ফলদ, বনজ এবং ঔষধি গাছ রোপন করব।দেশে বায়ুদূষণ থেকে শুরু করে নানা ধরনের দূষণ বিরাজ করছে। বৃক্ষ নিধনের বিষয়টি শক্ত হাতে দমন করতে হবে প্রশাসনকে।
স্বাধীনতার পর বঙ্গবন্ধু দেশ গঠনের প্রতিটি ক্ষেত্রের মতো একটি সবুজ বাংলাদেশ গড়ে তোলার স্বপ্নের বীজ বপন করে দিয়েছিলেন। যুদ্ধের সময় প্রকৃতির যে ক্ষতি হয়েছিল, সে ক্ষতি কাটিয়ে ওঠার জন্য তিনি দেশব্যাপী বৃক্ষরোপণ কার্যক্রম হাতে নিয়েছিলেন। গণভবন, বঙ্গভবন ছাড়াও ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের অনেক গাছ বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি বহন করে। উপকূলীয় অঞ্চলে যে সবুজ বেষ্টনী আমরা দেখি, তা–ও শুরু হয়েছিল বঙ্গবন্ধুর হাত ধরেই।
সারা দেশে সবুজ বেষ্টনী গড়ে তোলার ক্ষেত্রেও সহায়ক হবে। নিরাপদ পরিবেশ সৃষ্টির লক্ষ্যে, দূষণমুক্ত সমাজ গড়ে তুলতে, সর্বোপরি আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার উদ্দেশ্যে মুজিববর্ষে চলমান বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিতে দেশের প্রত্যেক নাগরিককেই এগিয়ে আসতে হবে

এ জাতীয় আরো সংবাদ