1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. rj.nazmul2500@gmail.com : Nazmul Hossain : Nazmul Hossain
বুধবার, ১২ মে ২০২১, ০৫:৫৭ পূর্বাহ্ন

লকডাউনে দ্বিগুণ বেড়েছে সবজির দাম

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২১
  • ৪৬ বার

করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় সারাদেশে সরকার ঘোষিত ৮ দিনের লকডাউন চলছে। আর এই লকডাউনে হিলিতে দ্বিগুণের চেয়েও বেশি সকল প্রকার সবজির দাম বেড়েছে। হঠাৎ দাম বাড়ায় বিপাকে পড়েছে নিম্ন আয়ের ও খেটে খাওয়া মানুষগুলো। এদিকে চাহিদা তুলনায় আমদানি কম হওয়ায় দাম বেড়েছে বলে জানান হিলি বাজারের সবজি ব্যবসায়ীরা।

শুক্রবার সকালে হিলি বাজার ঘুরে দেখা গেছে, লকডাউনের আগের দিনে প্রতিটি সবজির দাম যা ছিলো, তা লকডাউনের দুই দিন পেরিয়ে যেতেই সরবরাহ কম অজুহাতে দ্বিগুণ বেড়েছে সব ধরনের সবজির দাম।

দুই দিনের ব্যবধানে ৩০ টাকা কেজি দরের বেগুন এখন বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা কেজি দরে। ৮ টাকা কেজির শসা বিক্রি হচ্ছে ৪০ টাকা ও ৪০ টাকার পটল বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা কেজি দরে,ঢেঁড়স ছিলো ২৫ টাকা এখন তা বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা। এছাড়াও ১০ টাকা পিচের বাঁধাকপি বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা।সবধরনের সবজির দাম দ্বিগুণ বেড়েছে।

সবজি কিনতে আসা ভ্যান চালক আসাদুল বলেন, লকডাউনের কারণে তেমন কামায় রোজগার নেই। এদিকে আজকে বাজার করতে এসে দেখি সব সবজির দাম বেড়েছে। আমরা গরীব মানুষ দিন খাটি, দিন খায় এভাবে সবজির দাম বাড়লে আমরা পরিবার পরিজন নিয়ে কীভাবে বাঁচবো।

আমেনা নামে সবজি ক্রেতার সাথে কথা হয় তিনি বলেন, বাজারে সব জিনিসের দাম বেশি। হঠাৎ এতো দাম বাড়লে, আমরা সাধারণ মানুষ কীভাবে চলবো? উপজেলা প্রশাসনের কাছে বাজার মনিটরিং এর দাবি জানাচ্ছি।

হিলি বাজারে খুচরা ব্যবসায়ী সোহেল রানা বলেন, লকডাউনে সব সবজির দাম বেড়ে গেছে। দাম বেশি হওয়ায় ক্রেতাদের সাথে কথা বেশি বলতে হচ্ছে।

পাইকারি সবজি ব্যবসায়ী ফেরদৌস রহমান বলেন, লকডাউনের কারণে বাজারে সবজির সরবরাহ কম হচ্ছে। আর চাহিদার তুলনায় সরবরাহ কমে যাওয়ায় সবজির দাম বেড়েছে। আমরা বাহিরের বাজার থেকে বেশি দামে কিনছি, বাজারেও বেশি দামে বিক্রি করছি। এছাড়াও গাড়ি ভাড়া বেশি পড়ছে সবকিছু মিলিয়ে আমাদের বিক্রি করতে হচ্ছে।

এ জাতীয় আরো সংবাদ