1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. arif_rashid@live.com : Arif Rashid : Arif Rashid
  3. meherunnesa3285@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
  4. rj.nazmul2500@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৩৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
সিরাজদিখানে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রার্থীদের জীবন বৃত্তান্ত সংগ্রহ শুরু প্রাচ্য-পাশ্চাত্যে ব্যবসায়িক সেতুবন্ধন গড়ে তুলবে বাংলাদেশ : প্রধানমন্ত্রী সিরাজদিখানে পেরিলা প্রদর্শনীর মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে বিকল্পধারা হতে কোন প্রার্থী দিব না: সাংসদ মাহি বি চৌধুরী সিরাজদিখানে ১০ লাখ টাকা ধার দিয়ে বেকায়দায় একটি পরিবার! সিরাজদিখানে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস পালিত ইউপি নির্বাচনে কেয়াইন ২নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য হতে চান রুবেল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বালুচর ১নং ওয়ার্ড সদস্য হতে চান ওয়াসিম আহমেদ ওমানকে হারিয়ে বিশ্বকাপে টিকে রইলো বাংলাদেশ সিরাজদিখানে ঈদ-এ মিলাদুন্নবী উপলক্ষে ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের প্রক্রিয়া শুরু

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৯
  • ২০৬ বার

কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ।

তিনি জানান, প্রথম পর্যায়ে উখিয়ার কুতুপালং ও টেকনাফের নয়াপাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কাঁটাতারের বেড়া দেওয়া হবে। বেড়া দেওয়ার জন্য যে পিলার প্রয়োজন, সেগুলোর নির্মাণও প্রায় শেষ পর্যায়ে।’

রোববার বেলা ১১টার দিকে কক্সবাজারের রামু সেনানিবাসের ৬টি ইউনিটকে রেজিমেন্টাল কালার প্রদান অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

সেনাপ্রধান বলেন, ‘মিয়ানমার আমাদের প্রতিবেশী রাষ্ট্র। আমরা প্রতিবেশীদের সঙ্গে সব সময় ভালো সম্পর্ক বজায় রাখতে চাই। ওটা আমাদের জাতীয় নীতির অংশ। সম্পর্ক উন্নয়নের জন্য আমি আগামী মাসে মিয়ানমার সফরে যাচ্ছি। ওখানে নানা বিষয়ে আলোচনা হতে পারে।’

তিনি বলেন, ‘ভারত ও মিয়ানমারের সঙ্গে আমাদের যে সীমান্ত রয়েছে, ওখানে কাঁটাতারের বেড়াও নেই, সীমান্ত সড়কও নেই। বর্তমান সরকার মিয়ানমারের সঙ্গে ২৮৭ কিলোমিটার সীমান্ত সড়ক করার অনুমোদন দিয়েছে। এই পরিকল্পনা চূড়ান্ত পর্যায়ে আছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে ঠিকাদার নিয়োগ করা হবে। এরপর কাজ শুরু হবে।’

অনুষ্ঠানে সেনাপ্রধান আরও বলেন, ‘প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই প্রশংসনীয় কার্যক্রম প্রদর্শনের মাধ্যমে এসব রেজিমেন্ট কালার পাওয়ার যোগ্যতা অর্জন করেছে। রেজিমেন্টাল কালার পাওয়া যে কোনও ইউনিটের জন্য একটি বিরল সম্মান এবং পবিত্র আমানত।’

এর আগে সকালে অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছালে ১০ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি ও এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল মো. মাঈন উল্লাহ চৌধুরী তাকে অভ্যর্থনা জানান। এসময় সেনাবাহিনীর একটি চৌকশ দল কুচকাওয়াজ প্রদর্শন ও সেনাবাহিনী প্রধানকে সালাম জানায়।

এ জাতীয় আরো সংবাদ