1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. arif_rashid@live.com : Arif Rashid : Arif Rashid
  3. meherunnesa3285@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
  4. rj.nazmul2500@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৪০ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
প্রাচ্য-পাশ্চাত্যে ব্যবসায়িক সেতুবন্ধন গড়ে তুলবে বাংলাদেশ : প্রধানমন্ত্রী সিরাজদিখানে পেরিলা প্রদর্শনীর মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে বিকল্পধারা হতে কোন প্রার্থী দিব না: সাংসদ মাহি বি চৌধুরী সিরাজদিখানে ১০ লাখ টাকা ধার দিয়ে বেকায়দায় একটি পরিবার! সিরাজদিখানে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস পালিত ইউপি নির্বাচনে কেয়াইন ২নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য হতে চান রুবেল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বালুচর ১নং ওয়ার্ড সদস্য হতে চান ওয়াসিম আহমেদ ওমানকে হারিয়ে বিশ্বকাপে টিকে রইলো বাংলাদেশ সিরাজদিখানে ঈদ-এ মিলাদুন্নবী উপলক্ষে ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ মালখানগরে নৌকার মাঝি হওয়ার লক্ষে মাঠে রয়েছেন দুইজন!

বড় ভাইকে অভিনন্দন জানালেন তাপস

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৯
  • ২৩৯ বার

আওয়ামী যুবলীগের নতুন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন শেখ ফজলে শামস পরশ। বড় ভাই শেখ ফজলে শামস পরশ নির্বাচিত হওয়ায় শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন ছোট ভাই সংসদ সদস্য শেখ ফজলে নূর তাপস। ক্যাসিনো কেলেঙ্কারিতে ভাবমূর্তি সঙ্কটে থাকা যুবলীগের অনুষ্ঠিত কংগ্রেসে পরশ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

তার বাবা শেখ ফজলুল হক মণির হাত ধরেই গড়ে উঠেছে এই সংগঠন। সঙ্কটে পড়া সংগঠনকে নতুনভাবে সাজাতেই তার হাতে এই দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। আগামী তিন বছর যুবলীগের নেতৃত্ব দেবেন তিনি।

শেখ ফজলে শামস পরশ ও শেখ ফজলে নূর তাপস জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতি ও যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ ফজলুল হক মনির দুই ছেলে।

ক্যাসিনো কাণ্ডে যুবলীগ নেতাদের জড়িত থাকায় দেশজুড়ে তুমুল আলোচনার মধ্যে সংগঠনটিকে ঢেলে সাজানোর উদ্যোগ নেয়া হয়। দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেয়া হয় চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরীকে। গতকালের কাউন্সিলেও তাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। এরপর থেকে বলা হচ্ছিল স্বচ্ছ ইমেজের কাউকে দায়িত্ব দেয়া হবে সংগঠনটির। প্রয়োজনে রাজনীতির বাইরের কেউ আসতে পারেন দায়িত্বে।

যুবলীগের সপ্তম কংগ্রেসের কার্যক্রম শুরুর পর থেকেই ঘুরে ফিরে শেখ ফজলে শামস পরশের নাম আসছিল। দলীয় সূত্র জানায়, যুবলীগের দায়িত্ব নিতে পরশকে শীর্ষ পর্যায় থেকে বলা হলেও তিনি শুরুতে আগ্রহী ছিলেন না। ফুফু শেখ হাসিনার সঙ্গে একান্ত আলোচনার পর তিনি রাজনীতিতে সক্রিয় হওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

উল্লেখ্য, ক্যাসিনো বাণিজ্য, টেন্ডার বাণিজ্যসহ নানা অভিযোগের মধ্যেই বাংলাদেশ আআওয়ামী যুবলীগের এই কংগ্রেস অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এই কংগ্রেসের আগেই ওমর ফারুক চৌধুরীকে চেয়ারম্যানের পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। এই বিতর্কে শুধু সাবেক চেয়ারম্যান না, অতীতের নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধেও নানা অভিযোগ উঠেছে। এই প্রেক্ষাপটে যিবলীগকে নিষ্কলুষ করতে এবং বিতর্কমুক্ত কংগ্রেস করতেই অতীতের কোনো কেন্দ্রীয় নেতাকে মঞ্চে ডাকা হয়নি বলেই যুবলীগ সূত্রে জানা গেছে।

শেখ ফজলুল হক মনি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাগ্নে এবং বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে অন্যতম প্রধান গেরিলা বাহিনী মুজিব বাহিনী তার নির্দেশে ও প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে গঠিত এবং পরিচালিত হয়। শেখ ফজলে শামস পরশ শেখ ফজলুল হক মনির বড় ছেলে। পরশ যে যুবলীগের দায়িত্ব পাচ্ছেন তা আগে থেকেই জানা গিয়েছিল। চেয়ারম্যান পদে সবচেয়ে বেশি আলোচনায় ছিল সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা শেখ ফজলুল হক মনির ছেলে শেখ ফজলে শামস পরশের নাম।

সূত্রগুলো বলছে, যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে শেখ ফজলুল হক মনির গড়া সংগঠন যুবলীগের ভাবমূর্তি পুনরুদ্ধার করতে তাই পরশের ওপর ভরসা রেখেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ জাতীয় আরো সংবাদ