1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. arif_rashid@live.com : Arif Rashid : Arif Rashid
  3. meherunnesa3285@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ১০:৫২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
বঙ্গবন্ধুর মাজার জিয়ারতে সাবেক ছাত্রলীগ ফোরাম! সিরাজদিখানে হামলার ঘটনায় মামলা, সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিককে প্রান নাশের হুমকি! মুন্সীগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের কমিটি বহাল সিরাজদিখানে খালেদা জিয়া ও আব্দুল হাইয়ের রোগমুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত সিরাজদিখানে জুয়া খেলতে বাঁধা দেয়ায় বৃদ্ধের মাথায় কোপ ও মারধর! উন্নত চিকিৎসায় ঢাকায় প্রেরণ। ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতির প্রথম মৃত্যু বার্ষিকীর স্মরণসভায় উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ সিরাজদিখানে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৮ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও সজিব ওয়াজিদ জয়ের জন্মদিন পালন সিরাজদিখানে স্বর্ণের দোকানে চুরির অভিযোগ! সাশ্রয়ী হওয়ার পাশাপাশি খাদ্য উৎপাদনে জোর প্রধানমন্ত্রীর সিরাজদিখানে জাল দলিল করে ভাইয়ের সম্পত্তি বোনের বিক্রি, ফেরৎ চাওয়ায় মারধর!

ভারতে মুসলিমদের সম্পত্তি জব্দ করে ক্ষতিপূরণ আদায়!

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২৫ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ৩১৯ বার

ভারতের উত্তর প্রদেশে সরকার যেভাবে নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ প্রদর্শনকারীদের বিরুদ্ধে ‘বদলা’ নেয়ার কথা বলছে এবং তাদের সম্পত্তি জব্দ করে ক্ষতিপূরণ আদায়ের চেষ্টা করছে তার কড়া নিন্দা করেছে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ।

আন্তর্জাতিক এই মানবাধিকার সংগঠনটি এক বিবৃতিতে বলেছে, উত্তর প্রদেশ সরকার এই ‘বদলা’ নেয়ার কথা ঘোষণা করার পরই মুজফফরনগর জেলায় কোনো আইন-কানুনের তোয়াক্কা না করে অন্তত ৭০টি দোকান বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এই সব দোকানপাটের প্রায় সবগুলোরই মালিক মুসলিম সম্প্রদায়ের লোকজন। মুজফফরনগর উত্তর প্রদেশের একটি মুসলিম অধ্যুষিত এলাকা।

বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইন ও প্রস্তাবিত এনআরসির বিরুদ্ধে গত কয়েকদিনে সেখানে তীব্র বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ হয়েছে। বিজনৌর, সম্ভল, লখনৌ, মুজফফরনগরসহ এই রাজ্যের বহু এলাকা গত কয়েকদিন ধরে এই প্রতিবাদ-আন্দোলনকে ঘিরে উত্তাল। এর ফলে নষ্ট হয়েছে ট্রেন, বাসসহ বহু সরকারি সম্পত্তিও।

এ যাবৎ সারা দেশে সবচেয়ে বেশি বিক্ষোভকারীর মৃত্যুও হয়েছে উত্তরপ্রদেশে। এখানে নিহত হয়েছেন অন্তত ১৮ জন।

এরই মধ্যে উত্তর প্রদেশ সরকার জানিয়েছে, তারা সিসিটিভি ফুটেজ থেকে বিক্ষোভকারীদের চিহ্নিত করে তাদের দোকানপাট ও সম্পত্তি জব্দ করবেন, যাতে সরকারি সম্পত্তি ভাঙচুরের ক্ষতি সেখান থেকে পুষিয়ে নেয়া যায়।

স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ঘোষণা করেছেন, ‘আমি স্পষ্ট করে বলতে চাই, সরকারি সম্পত্তি যারা ভাঙচুর করেছেন বা আগুন ধরিয়েছেন, হামলাকারীদের সম্পত্তি নিলাম করেই সেই অর্থ উসুল করা হবে। এই উপদ্রবী বা হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আমরা প্রতিশোধ নেব।’

 

এ জাতীয় আরো সংবাদ