1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. arif_rashid@live.com : Arif Rashid : Arif Rashid
  3. meherunnesa3285@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ১০:৫৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
সিরাজদিখানে অযত্ন অবহেলায় নষ্ট হচ্ছে ভ্রাম্যমান লাইব্রেরী, দেখার কেউ নেউ! জনস্বার্থে দেওয়া স্ট্যাটাসকে কেন্দ্র করে সাংবাদিকের উপর হামলা! তৃণমূল সাংবাদিক মহল ক্ষুব্ধ। সিরাজদিখানে শেখ সাহেব খ্যাত রশিদ মাস্টারের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে স্বরণ সভা! সিরাজদিখানে লাউ গাছ কেটে কৃষকের ক্ষতি সাধনের অভিযোগ! শেখ সাহেব খ্যাত রশিদ মাস্টারের ১৭ তম মৃত্যু বার্ষিকী আজ বিশ্বকাপ ফাইনাল ঘিরে ঢাকায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নিরাপত্তা জোরদার! ফাইনালের আগে মেসিকে ছেলের আবেগঘন চিঠি! বিশ্বকাপঃ আজ সবকিছুই লিওনেল মেসি ও আরজেন্টিনার জন্য! ‘সাব -রেজিস্ট্রার কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা অবমাননা’ শিরোনামে স্থানীয় দৈনিকে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও ব্যাখ্যা সিরাজদিখানে রাজনৈতিক কোন্দলে বিজয় দিবসের শ্রদ্ধা নিবেদনে অনিহা ছাত্রলীগের!

ঢাকার সিনেমায় শাকিব খান নির্ভরতা কমাতে হবে

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৩৮৮ বার

বাংলাদেশে বেশ কয়েকটি সিনেমা যৌথ প্রযোজনা করেছে পশ্চিমবঙ্গের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান এসকে মুভিজ। নিয়মিত বাংলাদেশে ছবি প্রযোজনার পরিকল্পনাও ছিল এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের। কিন্তু যৌথ প্রযোজনার ছবি নির্মাণের সময় নানামুখী বাঁধার সম্মুখীন হওয়ায় আর কোনো সিনেমা প্রযোজনা করছে না প্রতিষ্ঠানটি।

এসকে মুভিজের কর্ণধার অশোক ধানুকা বলেন, বাংলাদেশে যৌথ প্রযোজনার চলচ্চিত্রের বাজার আছে। কিন্তু ছবি মুক্তি দিতে যে ধরনের বাঁধার সম্মুখীন হতে হয় তাতে ছবি নির্মাণ করা কারও পক্ষে সম্ভব না। অসৎ লোকের আখড়া ওখানে। সিনেমার অবস্থা যা হোক, কমিশন না দিলে ছবি চালানো যায় না। ওখানের কেউ প্রযোজকের দিকে তাকায় না। নিজের পকেট ভরতে ব্যস্ত।

বাংলাদেশের চলচ্চিত্রকর্মীদের মাঝে অভ্যন্তরীণ কোন্দল নিয়েও কথা বলেন তিনি। ধানুকা মনে করেন, অভ্যন্তরীণ কোন্দল ঢাকাই সিনেমাকে কেবল পেছনের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। তিনি বলেন, ঢাকায় কাজ করে সেখানকার চলচ্চিত্রের মানুষের সাথে মিশেছি। তাদের নিজেদের মধ্যে একতা নেই। সবসময় একে অন্যের পেছনে লেগে থাকে। এটা একটি ইন্ডাস্ট্রির জন্য খুব খারাপ।

এছাড়া ঢাকাই সিনেমায় শাকিব খান নির্ভরতা কমাতে হবে- এমনটা মনে করেন পশ্চিমবঙ্গের এই প্রযোজক। ধানুকা বলেন, বাংলাদেশে শুধু একটাই নায়ক। ওখানে আরও পাঁচ জোড়া নায়ক-নায়িকা উঠে আসা দরকার। কিন্তু আসছে না। যার কারণে ইন্ডাস্ট্রি ধুঁকছে। এভাবে চললে ঢাকার সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি কখনও দাঁড়াতে পারবে না।

বাংলাদেশে ২০২১ সাল থেকে হিন্দি সিনেমা আমদানির প্রক্রিয়া চলছে। অশোক ধানুকার মতে, শাকিব খানের বাজারে হিন্দি সিনেমা বিশেষ সুবিধা করতে পারবে না। শাকিব খানের পাশাপাশি আরও কয়েকজন নায়ক দাঁড়িয়ে গেলে হিন্দি সিনেমা কোনঠাসা হয়ে পড়বে।

এ জাতীয় আরো সংবাদ