1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. arif_rashid@live.com : Arif Rashid : Arif Rashid
  3. meherunnesa3285@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ০৯:৫৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
সিরাজদিখানে দোকান বাকী না দেওয়ায় শারীরিক প্রতিবন্ধিকে মারধর ।। সংবাদ সংগ্রহ করায় সাংবাদিকের উপর চড়াও! শাহজাদপুরে চিরদিনের জন্য রেখে এলাম আমাদের কলিজার টুকরা ফাহাদ আব্বুকে ‘পুতিন কবে আমাদের রেলভ্রমণ করে গেলেন কেউ জানলাম না’ ভূট্টা চাষে আগ্রহ বেড়েছে কৃষকদের!  কচুর লতি বিক্রি করতে বাজারে বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাপক! পি কে হালদারকে বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তর করবে ভারত এবার আসছে পানযোগ্য স্যানিটাইজার বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটূক্তি: নুরের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে অভিযোগ নুসরাতের রইল না কেউ, সকালে মারা গেলেন মা-বোন বিকেলে বাবা ঘর উপহার পেয়ে আনন্দের বন্যা ভূমি ও গৃহহীন পরিবারের সদস্যদের

ভারতে স্থায়ীভাবে বন্ধ হল চীনের জনপ্রিয় ৫৯টি অ্যাপ

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২৭ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৪৩৪ বার

ভারত টিকটক, শেয়ার-ইট, ইউসি ব্রাউজারের মতো চীনের জনপ্রিয় ৫৯টি অ্যাপ স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে ভারত সরকারের ব্যাখ্যা চেয়ে পাঠানো প্রশ্নের জুতসই জবাব না পারায় এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে নয়াদিল্লি। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

এক বিজ্ঞপ্তিতে চীনের ৫৯টি অ্যাপ নিষিদ্ধ করার বিষয়টি জানায় ভারতের ইলেকট্রনিকস এবং ইনফরমেশন টেকনোলজি মন্ত্রণালয়।

গত জুনে ওই মন্ত্রণালয়ের করা নোটিশের প্রেক্ষাপটে চীনের ওই অ্যাপ নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলোকে নিজেদের অবস্থান ব্যাখ্যা করার সুযোগ দেয় ভারত সরকার। টিকটকসহ ওই প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে গ্রাহকের ব্যক্তিগত তথ্যের গোপনীয়তা ও নিরাপত্তার বিষয়ে তাদের অবস্থান জানতে চায় ভারতীয় কর্তৃপক্ষ। তবে প্রতিষ্ঠানগুলোর পাঠানো জবাবে সন্তুষ্ট হতে পারেনি তারা।

সে কারণে এখন থেকে এই অ্যাপগুলো ভারতে স্থায়ীভাবে বন্ধ বলে ঘোষণা দেওয়া হয়। গত সপ্তাহেই এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা জারি করে ভারত সরকার।

উল্লেখ্য, গত জুনে এই অ্যাপগুলো সাময়িকভাবে বন্ধ করে দিয়েছিল ভারত সরকার। ওই সময় দেশটির তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় জানিয়েছিল, ওই অ্যাপগুলো দেশের সার্বভৌমত্ব, অখণ্ডতা, দেশের সুরক্ষার জন্য ক্ষতিকারক। সে কারণেই অ্যাপগুলো নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

গত ১৫ জুন লাদাখে সীমান্ত–সংঘর্ষে ভারতের ২০ সেনা নিহত হওয়ার পর দুই দেশের মধ্যে চরম উত্তেজনার মধ্যে ৫৯টি চীনা অ্যাপ বন্ধ করে ভারত। তাদের অভিযোগ ছিল- এসব অ্যাপ তথ্য চুরি করে তা স্থানান্তর করছে।

এ জাতীয় আরো সংবাদ