1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. arif_rashid@live.com : Arif Rashid : Arif Rashid
  3. meherunnesa3285@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
  4. rj.nazmul2500@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০৯:৩১ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
সিরাজদিখানে টানা বৃষ্টিতে ১০ হাজার কৃষকের স্বপ্ন ভঙ্গ! ভোগান্তিতে দিনের শুরু ভোগান্তিতেই শেষ প্রতিমন্ত্রী মুরাদকে সামাল দেওয়ার চেষ্টা করেছি: নায়ক ইমন প্রতিমন্ত্রী মুরাদ ছাত্রদল করতেন : ফখরুল সিরাজদিখানে উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে প্রসূতি নারীর মৃত্যু! সেন্টমার্টিনে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল বন্ধ সিরাজদিখানে প্রচারণায় এগিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা! চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে আপনাদের জীবনমান উন্নয়নে কাজ করে যেতে চাই || শামসুজ্জামান পনির সিরাজদিখানে চেয়ারম্যান প্রার্থী আশরাফ আলীর সমর্থনে নির্বাচনী উঠান বৈঠক চেয়ারম্যান প্রার্থী মামার পক্ষে নৌকায় ভোট চাইলেন ভাইস চেয়ারম্যান মঈনূল হাসান নাহিদ

তোমরা মানুষ হও

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১৬ অক্টোবর, ২০২১
  • ১৬৫ বার

মোঃ আসাদ উল্লাহ তুষার

সাধারণত ফুটবল খেলায় গোল পোস্টের পেছনে জাল লাগানো থাকে। যাতে করে গোল হওয়ার পরে বল জালের মধ্যেই থেকে যায়। আবার এই জাল গোল পোস্টের পেছনে থাকায় গোলের কোন বিঘ্ন ঘটে না। যদিও বিধান নেই কিন্তু গোল পোস্টের সামনে যদি এই জাল লাগানো হয় তাহলে গোল হওয়ার কোন সম্ভবনাই থাকে না। এক যুগ ধরে নানা কিসিমের ষড়যন্ত্র চক্রান্ত করে এবং এ পর্যন্ত তাতে ব্যর্থ হয়ে একটি দেশবিরোধী অশুভ শক্তি পুরানো খেলা আবার নতুন করে শুরু করেছে। অবশ্য এ খেলা পাকিস্তান আমল থেকে চলে আসছে, আবার বার বার এই খেলায় তারা পরাজিতও হয়েছে। কিন্তু তারা খেলা বন্ধ করে নাই বরং ওঁৎ পেতে থেকেছে কখন আবার পুরান খেলা নতুন করে শুরু করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করবে।

অবৈধভাবে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা দখল করে দখলদাররা ক্ষমতাকে পাকা পোক্ত করতে অতীতে বার বার ধর্মকে নিজেদের হীন স্বার্থে ব্যবহার করতে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করার জন্য হেন কোন পন্থা নাই যা অবলম্বন করে নাই। সেই পাকিস্তান জামানায় সামরিক স্বৈরশাসক আয়ুব খান থেকে শুরু করে জিয়া এরশাদ ও পরবর্তীতে একই আদর্শের বিএনপি-জামাত জোট ক্ষমতায় থাকতে ও ক্ষমতার বাইরে থেকেও এই অপকর্ম করে দেশকে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টির পায়তারা করেছে। বাঙালির হাজার বছরের পারস্পরিক সম্প্রীতিকে বার বার গলা টিপে হত্যা করার অপচেষ্টা করা হয়েছে। বিশেষ করে মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্ব দানকারী আওয়ামী লীগ সরকার যখন ক্ষমতায় থেকেছে তখনই দেশী বিদেশী শক্তি ও অর্থের বিনিময়ে একাত্তরের পরাজিত শক্তি ও তাদের অপরাপর সঙ্গীদের নিয়ে বিএনপি-জামাত জোট সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের জন্য উঠে পড়ে লেগেছে।

কিন্তু এবারের ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে অন্যভাবে, শেখ হাসিনার দেয়া ডিজিটাল বাংলাদেশের সকল সুযোগ সুবিধা ভোগ করে এবং সেই সব সুবিধাকে কাজে লাগিয়ে দেশে থেকে এবং বিদেশে বসে শেখ হাসিনার সরকারের বিরুদ্ধে, সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে, সর্বোপরি দেশের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার, অপপ্রচার, ষড়যন্ত্র চক্রান্ত হ্যানো কোন অপতৎপরতা নাই যা চালাচ্ছে না। কিছু ধর্মের নামে উগ্র সাম্প্রদায়িক শক্তি, দেশ থেকে কিছু বিতাড়িত সাংবাদিক, সাবেক সেনা কর্মকর্তা ও উচ্ছিষ্ট রাজনৈতিক নেতা নামধারী কিছু দেশদ্রোহী ব্যক্তিবর্গ এবং সুশীল নামধারী কিছু ব্যক্তিবর্গ এই আগুন নিয়ে খেলছে। যাদের মূল নেতৃত্বে আছেন বিএনপি’র বর্তমান প্রধান নেতা যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত, দুর্নীতির দায়ে দণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক এক লন্ডনপ্রবাসী শীর্ষ নেতা, যার পিতাও ছিলেন একজন ষড়যন্ত্রকারী। সরকারের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গের বিরুদ্ধে, মুসলমানদের ধর্মীয় অনুভূতিকে পুঁজি করে, সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে, প্রশাসনের বিরুদ্ধে, আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় লালিত গৌরবময় সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে এক কথায় দেশের বিরুদ্ধে । বন্ধু প্রতিম কোন দেশ বা পার্শ্ববর্তী দেশের সাথে নিজের দেশকে অহেতুক শত্রুর কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে নিয়ে, মনগড়া হঠকারী অসত্য তথ্যেভরা, মানুষকে বিভ্রান্ত করার মনোভাব নিয়ে বিদেশে বসে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের মাফিয়াদের কাছ থেকে অর্থ বিত্তের সহযোগিতা নিয়ে এই অপপ্রচার চালাচ্ছে।সেনাবাহিনী, সরকার, বিচার বিভাগ এবং দেশকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করার জন্য ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ক্ষমতাচ্যুত করার জন্য ধারাবাহিক ভাবে একের পর এক কল্পকাহিনীর জন্ম দিচ্ছে এই কুচক্রীরা। বর্তমান সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করতে গিয়ে তারা দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে।

গোপনে ও প্রকাশ্যে ষড়যন্ত্র দীর্ঘদিন যাবত চলছে । সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজাকে কেন্দ্র করে এবং মুসলিম সম্প্রদায়ের সাথে বিরোধ বাজিয়ে এবং মুসলমানদের ধৰ্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দিতে পরিকল্পিত ভাবে যে ঘটনা ঘটিয়ে দেশব্যাপী সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে উষ্কানীমূলক কার্যক্রম পরিচালনা করা হলো তা যে বিদেশি নেতার চিত্রনাট্যের অংশ তা সহজে অনুমেয়। বেশকিছু দিন যাবৎ তাদের দলের বিভিন্ন নেতাদের উষ্কানীমূলক কথাবার্তায় তা আরো পরিস্কার। এ ক্ষেত্রে সোশ্যাল মিডিয়ার সাথে দেশি-বিদেশি কুচক্রীদের সঙ্গে নিয়ে এবং বিপুল অর্থ ব্যয় করে বিদেশি গণমাধ্যমও ব্যবহার করা হয়েছে । আল জাজিরা সহ নানা ধরনের বিদেশী মিডিয়ায় প্রপাগণ্ডা চালিয়ে শেখ হাসিনার সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার অপচেষ্টা করা হয়েছে। আগের মত এখনও বিদেশে বসে থেকে স্পর্শকাতর বিষয়ে অনবরত মিথ্যাচার করে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।

আগামী দুই বছর পর দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। এছাড়াও দেশব্যাপী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন চলছে। ক্ষমতার বাইরে থেকে পাগলপ্রায় নেতৃত্ব শূন্য বিএনপি ও তাদের আজীবনের দোসর জামাত শিবিরকে সাথে নিয়ে দুর্গা পূজাকে টার্গেট করে দেশে অরাজকতা সৃষ্টির চেষ্টা করেছিল। সরকারের উচ্চ পর্যায়ে থেকে এ ব্যাপারে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহন করে দোষীদের শাস্তির নিশ্চয়তা দেয়া হয়েছে। আশা করা যায় এই অপকর্মের সাথে যারা জড়িত তাদের উপযুক্ত শাস্তি নিশ্চিত করা হবে। ধর্মীয় স্পর্শকাতর বিষয়কে সামনে নিয়ে যারা সরকারকে বিব্রত ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কে ঝুঁকিতে ফেলতে চায় তারা যে কারা তা দেশবাসী জানে। তারা দেশবাসীর কাছে অনেক আগেই চিহ্নিত। ইউনিয়ন পরিষদেও যারা প্রার্থী দিতে পারে না, সংসদ নির্বাচনে প্রার্থিতা দিতে যারা মোটা অংকের ব্যবসা করে, নেতা কর্মীদের মাঠে ঠেলে দিয়ে যে নেতা নিশ্চিন্তে বিদেশে বসে বিলাসী জীবন যাপন করে ও দেশের বিরুদ্ধে অপতৎপরতা চালায় সেই দল ও তার নেতারা যে এইসব অপকর্ম করবে তা হয়তো স্বাভাবিক! কিন্তু আগুন নিয়ে খেলার পরিণতিও তাদের চিন্তা করা উচিত। ত্রিশ লক্ষ শাহিদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশে তাদের এই ষড়যন্ত্র সফল হবে না।

আগামী জাতীয় নির্বাচন ঠেকাতে তারা ভাবছে গোল পোস্টের সামনে ষড়যন্ত্রের জাল লাগিয়ে দিলে সরকার চুড়ান্ত গোল দিতে পারবে না। কিন্তু ওরা জানে না ইয়াসমিন, ফাহিমা, পূর্ণিমা, মাহিমা,গোপাল কৃষ্ণ মুহুরী আর রায়গঞ্জের কৃষক নেতা আজমদের পরিবারের হৃদয়বিদারক আহাজারি আর এক সাগর রক্তের উত্তরাধিকারদের স্বজনদের চোখের জলের কারণে গোল পোস্টের সামনে লাগানো তাদের ষড়যন্ত্রের জাল ভিজে নরম হয়ে গেছে। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার সরকার যেভাবে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন,সবদিক দিয়ে দেশ যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে, দেশের সব সম্প্রদায়ের মানুষ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ তাতে কোন ধরনের নতুন পুরাতন ষড়যন্ত্রই কাজে লাগবে না। মাঝমাঠ থেকে কিক করে ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করেই বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা গোল দিবেই। অতএব তোমরা মানুষ হও।

লেখকঃ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ।
ই-মেইল:asadullahtushar@gmail.com

এ জাতীয় আরো সংবাদ