1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. arif_rashid@live.com : Arif Rashid : Arif Rashid
  3. meherunnesa3285@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
  4. rj.nazmul2500@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০৮:১৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
ভোগান্তিতে দিনের শুরু ভোগান্তিতেই শেষ প্রতিমন্ত্রী মুরাদকে সামাল দেওয়ার চেষ্টা করেছি: নায়ক ইমন প্রতিমন্ত্রী মুরাদ ছাত্রদল করতেন : ফখরুল সিরাজদিখানে উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে প্রসূতি নারীর মৃত্যু! সেন্টমার্টিনে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল বন্ধ সিরাজদিখানে প্রচারণায় এগিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা! চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে আপনাদের জীবনমান উন্নয়নে কাজ করে যেতে চাই || শামসুজ্জামান পনির সিরাজদিখানে চেয়ারম্যান প্রার্থী আশরাফ আলীর সমর্থনে নির্বাচনী উঠান বৈঠক চেয়ারম্যান প্রার্থী মামার পক্ষে নৌকায় ভোট চাইলেন ভাইস চেয়ারম্যান মঈনূল হাসান নাহিদ সিরাজদিখানে দীর্ঘ দিনের টেঁটা যুদ্ধ অবসানের লক্ষ্যে মতবিনিময় সভা

অসাম্প্রদায়িক চেতনার বাংলাদেশ গড়তে চাই : প্রধানমন্ত্রী

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১৮ অক্টোবর, ২০২১
  • ৭৩ বার

জীবনকে অর্থপূর্ণ ও সাফল্যমণ্ডিত করতে সন্তানদের সঠিকভাবে ভালোবাসা ও স্নেহ দিয়ে গড়ে তোলার জন্য সবাইকে আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, আজকের শিশুরাই আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। তাই দেশের মানুষকে শিশুদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য তাদেরকে ভালোবাসা দিয়ে জীবনকে উন্নত, সফল ও অর্থপূর্ণ করার অনুরোধ জানাই।

তিনি আরও বলেন, একটা অসাম্প্রদায়িক চেতনার বাংলাদেশ গড়তে চাই। উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে চাই। সোনার বাংলাদেশ গড়তে চাই। যে দেশে কোনো অন্যায় থাকবে না। অবিচার থাকবে না। মানুষ সুন্দরভাবে বাঁচবে, সেটাই আমি চাই।

আজ সোমবার (১৮ অক্টোবর) শেখ রাসেল দিবস-২০২১ এর উদ্বোধনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। তিনি গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে অনুষ্ঠানে যুক্ত হন। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদ এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভালোবাসা দিয়ে শিশুদের সঠিকভাবে তৈরি করা সবার দায়িত্ব ও আদর্শ হওয়া উচিত। শিশুরা আত্মবিশ্বাস ও আত্মমর্যাদা নিয়ে গড়ে উঠুক। তাদের প্রতিভা বিকশিত হোক। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা লালন করুক। আধুনিক বিজ্ঞান প্রযুক্তি শিক্ষায় নিজেদের উন্নত করে গড়ে তুলুক, সেটাই আমরা চাই।

শিক্ষাকে শিশুদের জন্য অমূল্য সম্পদ হিসেবে বর্ণনা করে শেখ হাসিনা তাদের লেখাপড়ায় মনোযোগী হওয়ার ও প্রযুক্তির এই যুগে ডিজিটাল মাধ্যম থেকে ভালো কিছু শেখার আহ্বান জানিয়ে বলেন, এই সম্পদ (শিক্ষা) কখনও হারিয়ে যাবে না বা কেউ তা ছিনিয়ে নিতে পারে না। শিক্ষা একজন মানুষের জীবনের সবচেয়ে অমূল্য সম্পদ। বর্তমান আধুনিক ও প্রযুক্তির যুগে সরকার ডিজিটাল শিক্ষার সুযোগ সম্প্রসারিত করছে। আজ বিশ্ব আমাদের হাতের মুঠোয়, কারণ সেখান থেকে সবকিছু জানা যায়। তাই এটি থেকে তোমরা শুধু ভালো জিনিসগুলো শিখবে এবং নিজেকে সঠিকভাবে নিজেকে গড়ে তুলবে।

সরকার বাংলাদেশকে একটি অসাম্প্রদায়িক চেতনায় উন্নত ও সমৃদ্ধশালী ‘সোনার বাংলা’ হিসেবে গড়ে তুলতে চায় উল্লেখ করে তিনি বলেন, এই বাংলাদেশ সামনে কেমন হবে তার জন্য প্রেক্ষিত পরিকল্পনা করে দিয়েছি। বাংলাদেশের আগামী দিনের চলার পথে যেন কোনো রকম হত্যা, ক্যু, ষড়যন্ত্র না হয়। বাংলাদেশের মানুষ যেন সুন্দরভাবে বাঁচতে পারে। ঘাতকের বুলেটে আর কোনো শিশুকে যেন এভাবে জীবন দিতে না হয়।

তিনি আরও বলেন, আমি সমগ্র জাতির কাছে এই আহ্বানই জানাব যে আজকের শিশু আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। কাজেই তাদের নিরাপত্তা দেয়া, তাদের ভালোবাসা দেয়া, তাদের সুন্দরভাবে গড়ে তোলা, তাদের জীবনটাকে স্বার্থক করা, অর্থবহ করা এটাই যেন সকলের আকাঙ্ক্ষা হয়, এটাই যেন সকলের আদর্শ হয় সেটাই আমি চাই।

ছোট ভাই রাসেলের স্মৃতিচারণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, রাসেল ছোটবেলা থেকে বাচ্চাদের নিয়ে প্যারেড করতো। সে বড় ভাই শেখ জামালের মতো সেনা অফিসার হতে চাইতো। বেঁচে থাকলে আজকে হয়তো সেনাবাহিনীর বড় অফিসার হতো।

তিনি বলেন, কেউ যদি জিজ্ঞেস করতো তুমি কী হবে? রাসেল বলত আমি আর্মি হবো। সে একটা আর্মি অফিসার হবে- এটাই তার জীবনের স্বপ্ন ছিল।

এ জাতীয় আরো সংবাদ