1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. arif_rashid@live.com : Arif Rashid : Arif Rashid
  3. meherunnesa3285@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ০১:৩২ অপরাহ্ন

নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় ইসির বৈঠক চলছে

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৩০ অক্টোবর, ২০২৩
  • ২৯ বার

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পরিবেশ শান্তিপূর্ণ রাখার করণীয় নির্ধারণে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়ালের নেতৃত্বাধীন কমিশন।

সোমবার (৩০ অক্টোবর) বেলা ১১টায় নির্বাচন ভবনের সভাকক্ষে এই সভা শুরু হয়েছে।

ইসি কর্মকর্তাদের সূত্রে জানা গেছে, জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় করণীয় নির্ধারণী সভায় সশস্ত্র বাহিনীর প্রিন্সপাল স্টাফ অফিসার; পুলিশ মহাপরিদর্শক; র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব), বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি), আনসার-ভিডিপি, কোস্টগার্ড, জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা (এনএসআই), প্রতিরক্ষা গোয়েন্দা মহাপরিদপ্তরের (ডিজিএফআই) মহাপরিচালক, স্পেশাল ব্রাঞ্চের (এসবি) অতিরিক্ত মহাপুলিশ পরিদর্শক এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিবকে উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে পাঠানো চিঠিতে ইসির পক্ষ থেকে আসছে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষার্থে দিকনির্দেশনামূলক এই সভায় সংশ্লিষ্ট সকলকে যথাসময়ে উপস্থিত থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সভায় নির্বাচন কমিশনাররা উপস্থিত থাকবেন।

এ প্রসঙ্গে ইসির অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ খবরের কাগজকে বলেন, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষেই আমরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের সচিবদের ডেকেছি। বিশেষ করে আগামী নির্বাচনে সমন্বয়ের জন্যই তাদের ডাকা হয়েছে। প্রত্যেকবারই আগে থেকে নির্বাচন সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিবদের সমন্বয়ের বিষয়টি জানানো হয়।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীদের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উচ্চ পর্যায়ের প্রতিধিদের ডাকা হয়েছে। তফসিল ঘোষণার পর থেকে ভোটের পরবর্তী সময় পর্যন্ত যেন আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ঠিক থাকে, সেই বিষয়েই বার্তা দেওয়া হবে। মূলত, আগামী নির্বাচন সফল করতেই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতা চাওয়া হবে।

ইসির তথ্য অনুযায়ী, নির্বাচনি প্রস্তুতির অংশ হিসেবে এরই মধ্যে ভোটগ্রহণের জন্য প্রয়োজনীয় সব ধরণের উপকরণ কেনা প্রায় শেষ পর্যায়ে। বর্তমানে মাঠ পর্যায়ে পাঠানোর প্রক্রিয়াও শুরু করেছে ইসি। সরকারি মুদ্রণালয়কে ব্যালট পেপারসহ অন্যান্য উপকরণ ছাপানোর নির্দেশনাও দিয়েছে ইসি। আগামী নভেম্বরের মাঝামাঝিতে চলছে তফসিল ঘোষণার প্রস্তুতি। আর ডিসেম্বরের শেষ থেকে জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে অনুষ্ঠিত হবে ভোটগ্রহণ।

এ জাতীয় আরো সংবাদ