1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. arif_rashid@live.com : Arif Rashid : Arif Rashid
  3. meherunnesa3285@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০৫:৪৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
সিরাজদিখানের বালুচরে বেদখল হওয়া সরকারী রাস্তা উদ্ধার! ফুটবল বিশ্বকাপ মঞ্চে লাল সবুজের পতাকা হাতে বাঙালী যুবক! সিরাজদিখানে গভীর রাতে গৃহবধূ প্রেমিকার ঘরে পরকীয়া প্রেমিক পাকরাও, থানায় হস্তান্তর! সিরাজদিখানে বঙ্গবন্ধু ফুটবল টুর্নামেন্টের ২য় সেমিফাইনাল অনুষ্ঠিত অতিরিক্ত টাকা না দিলে ফাইল ছুড়ে ফেলে দেন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা আব্দুস সামাদ! যুবলীগের কেন্দ্রীয় যুব-সমাবেশে সিরাজদিখানের দুই হাজার যুবলীগ নেতাকর্মীর যোগদান সিরাজদিখানে মজুদ কৃত আলু নিয়ে বিপাকে কৃষক! সিরাজদিখান সাব রেজিষ্ট্রি অফিসে সক্রিয় প্রভাবশালী জালিয়াতি চক্রের দৌরাত্ম! সিরাজদিখানে গ্রীল কেটে স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকাসহ ১০ লাখ টাকার মালামাল চুরি! বিড়াল হত্যার বিচার চেয়ে তরুণী থানায়। অভিযোগ শুনে পুলিশের হাসিঠাট্টা

আপিল বিভাগের এজলাসে বসলো ৮ সিসি ক্যামেরা

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ৬৯৭ বার

সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের এজলাস কক্ষ নিয়ন্ত্রণের জন্য আটটি সিসি ক্যামেরা বসানোর কাজ শুরু হয়েছে। কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে ইলেকট্রিশিয়ানরা মঙ্গলবার (১০ ডিসেম্বর) দুপুরের পর থেকে সিসি ক্যামেরাগুলো বসানোর কাজ শুরু হয়।

জানা গেছে, এজলাসের যে কক্ষে সিসি ক্যামেরাগুলো লাগানো হচ্ছে সেটি মূলত প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন এক নম্বর এজলাস কক্ষ।

এদিকে, সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসনের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও খালেদা জিয়ার আইনজীবী অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন।

খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের ওপর শুনানিকে কেন্দ্র করে গত ৫ ডিসেম্বর সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে নজীরবিহীন অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়। বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের মুহুর্মুহু স্লোগান এবং সরকারপন্থী আইনজীবীদের প্রতিবাদের মুখে চরম হইচই-হট্টগোলের সৃষ্টি হয়। ফলে বিচারকাজ বন্ধ হয়ে যায়।

এ প্রেক্ষাপটে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে আপিল বিভাগের ছয় বিচারপতি প্রথম ধাপে এজলাস ত্যাগ করেন। পরে সোয়া এক ঘণ্টার বেশি সময় নির্বিকার এজলাসে বসে থাকেন বিচারপতিরা। এসময় আইনজীবীদের ওই আচরণে প্রধান বিচারপতি চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

আর এহেন অবস্থায় সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন আপিল বিভাগের এক নম্বর বেঞ্চে সিসি ক্যামেরা বসানোর সিদ্ধান্ত নেয়।

এ জাতীয় আরো সংবাদ