1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. arif_rashid@live.com : Arif Rashid : Arif Rashid
  3. meherunnesa3285@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
মঙ্গলবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৬:১৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
বঙ্গবন্ধুর মাজার জিয়ারতে সিরাজদিখান চেয়ারম্যান ফোরাম! মুন্সীগঞ্জ জেলা পরিষদ নির্বাচনে হেভিওয়েট প্রার্থী মোঃ মাসুদ লস্কর! নিভৃতচারী শেখ রেহানা সিরাজদিখানে তারাবী নামাজে ভুল ধরাকে কেন্দ্র করে ঈমাম তাড়ানোর পায়তারা! সিরাজগঞ্জ জেলা পরিষদে শক্ত প্রার্থী এডভোকেট কে এম হোসেন আলী হাসান প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে উন্নয়নের মহাকাব্য রচনার আহ্বান জিটুর সিরাজদিখানে শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত ইছাপুরায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া ও আলোচনা সভা! সিরাজদিখানে বিএনপির বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ১৫ পরিবারকে ঘর উপহার

টিসিবির পেঁয়াজ এখন ৩৫ টাকা কেজি

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ২৬৭ বার

ট্রাকে করে খোলা বাজারে বিক্রি করা পেঁয়াজের দাম কমিয়েছে সরকারি বিপণন সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)। কেজিপ্রতি ১০ টাকা কমিয়ে এখন থেকে ৩৫ টকায় পেঁয়াজ বিক্রি করবে সংস্থাটি।

আগামীকাল সোমবার থেকে নতুন দামে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করবে। এতদিন প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৪৫ টাকা দরে বিক্রি করেছে টিসিবি।

রোববার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে টিসিবি জানায়, বাজার পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পরবর্তী সিদ্ধান্ত পর্যন্ত ৩৫ টাকা দরে পেঁয়াজ বিক্রি হবে।

গত সেপ্টেম্বরে ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেয়ায় অক্টোবরের শুরুতে বাজারে পেঁয়াজের দাম ব্যাপকভাবে বেড়ে যায়। এরপর সরকার টিসিবির মাধ্যমে ন্যায্য মূল্যে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করে। তখন থেকে ট্রাকের মাধ্যমে খোলা বাজারে ৪৫ টাকা কেজি দরে জনপ্রতি দুই কেজি হারে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করে টিসিবি।

বর্তমানে বাজারে নতুন পেঁয়াজ আসায় দাম অনেকটা কমে এসেছে। এছাড়া আমদানি করা বিদেশি বড় পেঁয়াজের দামও কমছে। আমদানি করা পেঁয়াজ মিলছে প্রতি কেজি ৭০ থেকে ৮০ টাকায়। এই পেঁয়াজই কিছুদিন আগে কেজিপ্রতি ১২০ টাকার বেশি ছিল। আর দেশি নতুন পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৯০ থেকে ১১০ টাকায়। তবে দেশি পুরোনো পেঁয়াজ এখনো ২০০ টাকার ঘরে।

নতুন পেঁয়াজ ও আমদানি করা পেঁয়াজের সরবরাহ বেড়ে যাওয়ায় বাজারে দাম কমেছে। ফলে কয়েক দিন ধরে টিসিবির ভ্রাম্যমাণ ট্রাকের সামনে ক্রেতাদের ভিড় কমে গেছে। এমতাবস্থায় এই সিদ্ধান্ত নেয় হয়েছে বলে জানা গেছে।

টিসিবির মুখপাত্র হুমায়ুন কবির জানান, ঢাকায় এখন ৫০টি ট্রাকে পেঁয়াজ বিক্রি করছে টিসিবির পরিবেশকেরা। আর বিভাগীয় শহরগুলোতে ৫ থেকে ১০টি করে এবং জেলা শহরে এক থেকে দুটি ট্রাকে করে টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রি করা হচ্ছে।

পেঁয়াজের দাম স্বাভাবিক পর্যায়ে না আসা পর্যন্ত টিসিবি পেঁয়াজ বিক্রি চালিয়ে যাবে বলে জানান তিনি।

এ জাতীয় আরো সংবাদ