1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. arif_rashid@live.com : Arif Rashid : Arif Rashid
  3. meherunnesa3285@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
  4. rj.nazmul2500@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৫৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
সিরাজদিখানে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রার্থীদের জীবন বৃত্তান্ত সংগ্রহ শুরু প্রাচ্য-পাশ্চাত্যে ব্যবসায়িক সেতুবন্ধন গড়ে তুলবে বাংলাদেশ : প্রধানমন্ত্রী সিরাজদিখানে পেরিলা প্রদর্শনীর মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে বিকল্পধারা হতে কোন প্রার্থী দিব না: সাংসদ মাহি বি চৌধুরী সিরাজদিখানে ১০ লাখ টাকা ধার দিয়ে বেকায়দায় একটি পরিবার! সিরাজদিখানে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস পালিত ইউপি নির্বাচনে কেয়াইন ২নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য হতে চান রুবেল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বালুচর ১নং ওয়ার্ড সদস্য হতে চান ওয়াসিম আহমেদ ওমানকে হারিয়ে বিশ্বকাপে টিকে রইলো বাংলাদেশ সিরাজদিখানে ঈদ-এ মিলাদুন্নবী উপলক্ষে ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ

সৌদি যুবরাজের নির্দেশে গ্রেফতার ২০ প্রিন্স

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৮ মার্চ, ২০২০
  • ৩৪৮ বার

এর আগে ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল ও নিউ ইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়, শুক্রবার সৌদি রাজপরিবারের তিন প্রিন্সকে গ্রেফতার করা হয়। নিরাপত্তা রক্ষীরা মুখোশ ও কালো পোশাক পড়ে রাজপরিবারের এসব সদস্যদের বাড়িতে গিয়ে তল্লাশি চালায়।

২০ জন প্রিন্সকে গ্রেফতার করলেও মিডল ইস্ট আই চার জন প্রিন্সের নাম নিশ্চিত করেছে। তাদের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গ্রেফতার হওয়া এসব প্রিন্সদের মধ্যে প্রিন্স আহমেদ, তার ছেলে প্রিন্স নায়েফ বিন আহমেদ আব্দুলাজিজ, সাবেক ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন নায়েফ ও তার সৎ ভাই নাওয়াফ বিন নায়েফ।

এদের মধ্যে অন্তত দুইজন দেশটির সবচেয়ে প্রভাবশালী ব্যক্তিদের অন্যতম।

গ্রেফতারের পর রাজপরিবারের সকল প্রিন্সকে যুবরাজ টুইটারে তার প্রতি আনুগত্য প্রকাশের নির্দেশ দেন। ইতোমধ্যে ৩ জন প্রিন্স সেটি পালন করেছেন।

বিভিন্ন আন্তর্জাতিক খবরে বলা হয়েছে, যুবরাজ সালমানের বিরুদ্ধে অভ্যুত্থানের অভিযোগে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যুবরাজ সালমানের নির্দেশে ২০১৭ সালে সৌদি রাজপরিবারের অনেক সদস্য, মন্ত্রী এবং ব্যবসায়ীকে রিয়াদের দেশটির রিৎস-কার্লটন হোটেলে আটকে রাখা হয়।

২০১৬ সালে যুবরাজ ঘোষণার পর থেকে রাজতন্ত্রের দেশটিতে মোহাম্মদ বিন সালমানকে অঘোষিত শাসক বলে মনে করা হয়। যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান সেসময় যখন চরম রক্ষণশীল সৌদি আরবে অর্থনৈতিক ও সামাজিক সংস্কারের ঘোষণা দিয়েছিলেন তখন সেটি বিশ্বব্যাপী প্রশংসা পেয়েছিল।

তবে ২০১৮ সাল নাগাদ ইস্তানবুলে সৌদি কনস্যুলেটে সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ডের ঘটনাসহ আরো বেশ কিছু কেলেঙ্কারির ঘটনার সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন যুবরাজ।

এ জাতীয় আরো সংবাদ