1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. arif_rashid@live.com : Arif Rashid : Arif Rashid
  3. meherunnesa3285@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ০৩:৩৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও আমার কিছু কথা।। মোহাম্মদ রোমান হাওলাদার সিরাজদিখানে চাপাতির ভয় দেখিয়ে মোবাইল ছিনতাই, ছাত্রলীগ সভাপতির ভাইসহ গ্রেফতার-৪ সিরাজদিখানে শহীদ মিনারে ফুল দেয়াকে কেন্দ্র করে যুবলীগের নেতা-কর্মীদের মধ্যে মারামারি,ছবি তোলায় দুই সাংবাদিকে পিটিয়ে আহত! সিরাজদিখান প্রেসক্লাবের দুই বছর মেয়াদে নির্বাচন সম্পন্ন সভাপতি মোক্তার সম্পাদক মাসুদ! অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বহু নাটকীয়তার পর বিরোধী দল হওয়ার সিদ্ধান্ত পিটিআইয়ের শান্তর বেতন ৯ লাখ, দেখে নিন কার কত নির্বাচনের পরেই সংসার ভাঙল মাহির কেউ যেন দেশকে পেছনে ঠেলে দিতে না পারে, সতর্ক থাকুন: প্রধানমন্ত্রী বাসচাপায় প্রাণ গেল মা‌-ছেলের

করোনায় ১০০ কোটি মানুষ আক্রান্ত হতে পারে

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২৯ এপ্রিল, ২০২০
  • ৩৪৪ বার

দুর্বল অর্থনীতির ও যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশগুলোকে জরুরি সহায়তা না করলে মহামারী করোনাভাইরাসে বিশ্বব্যাপী ১০০ কোটি মানুষ আক্রান্ত হতে পারে। মঙ্গলবার এমন শঙ্কার কথা জানিয়েছে আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল রেসকিউ কমিটি (আইআরসি)।

এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিস।

বিবিসি জানিয়েছে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও ইম্পেরিয়াল কলেজ অব লন্ডনের কাছ থেকে তথ্য সংগ্রহের মাধ্যমে করোনাভাইরাস নিয়ে একটি প্রতিবেদনে তৈরি করেছে আইআরসি।

তাদের সেই প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, আফগানিস্তান, সিরিয়া ও ইয়েমেনের মতো অস্থিতিশীল ও যুদ্ধ-সংঘাত কবলিত কয়েক ডজন দেশে করোনা মোকাবেলায় এখনই আর্থিক সহায়তা প্রয়োজন। তা না করলে মহামারীটির সংক্রমণ ব্যাপক আকারে ছড়িয়ে পড়তে পারে। এ ক্ষেত্রে হাতে সময় খুব কম। ধনী দেশগুলোর শিগগিরই এ বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

আইআরসির প্রেসিডেন্ট ও সিইও ডেভিড মিলিব্যান্ড বলেছেন, দাতা দেশগুলো একজোট হয়ে এখনই তহবিল গঠন না করলে অন্তত ৩০ লাখের বেশি মানুষের প্রাণ কেড়ে নেবে করোনা। এই সংখ্যাটার কথা ভেবে হলেও আমাদের জাগতে হবে।

তিনি বলেন, এই মহামারীর সম্পূর্ণ, ধ্বংসাত্মক এবং অপ্রতিরোধ্য ক্ষয়ক্ষতি কিংবা বিপর্যয় এখনো বিশ্বের সবচেয়ে ভঙ্গুর অর্থনীতি ও যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশগুলোতে অনুভূত হয়নি। এই মহামারি থেকে রক্ষা পেতে দাতাদেরকে জরুরিভিত্তিতে এসব দেশকে আর্থিক সহায়তা করতে হবে।

আইআরসির দৃষ্টিতে করোনা সংক্রমণের জন্য এসব ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর মধ্যে ইয়েমেন অন্যতম।

এ বিষয়ে একমত আন্তর্জাতিক সংস্থা ডক্টরস উইদাউট বর্ডারস (এমএসএফ)।

সংস্থাটির ইয়েমেন কার্যক্রমের ব্যবস্থাপক ক্যারোলিন সেগুইন বলেন, উন্নয়নশীল বহু দেশেই সরকারি হিসেবে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা অনেক কম হলেও সত্যিকার অর্থে এ সংখ্যা অনেক বেশি। আমরা মনে করি যুদ্ধাহত দেশ ইয়েমেন এরইমধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়ে অনেকে মারা গেছেন। তাদের কেউ হাসপাতালে মারা যাননি। তাই এ সংখ্যা হিসাবে আসছে না।

প্রসঙ্গত আন্তর্জাতিক জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, এ পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৩১ লাখ ছাড়িয়েছে। মারা গেছেন ২ লাখ ১৫ হাজারের বেশি মানুষ।

সূত্র : যুগান্তর

এ জাতীয় আরো সংবাদ