1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. arif_rashid@live.com : Arif Rashid : Arif Rashid
  3. meherunnesa3285@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
মঙ্গলবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৬:০৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
বঙ্গবন্ধুর মাজার জিয়ারতে সিরাজদিখান চেয়ারম্যান ফোরাম! মুন্সীগঞ্জ জেলা পরিষদ নির্বাচনে হেভিওয়েট প্রার্থী মোঃ মাসুদ লস্কর! নিভৃতচারী শেখ রেহানা সিরাজদিখানে তারাবী নামাজে ভুল ধরাকে কেন্দ্র করে ঈমাম তাড়ানোর পায়তারা! সিরাজগঞ্জ জেলা পরিষদে শক্ত প্রার্থী এডভোকেট কে এম হোসেন আলী হাসান প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে উন্নয়নের মহাকাব্য রচনার আহ্বান জিটুর সিরাজদিখানে শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত ইছাপুরায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া ও আলোচনা সভা! সিরাজদিখানে বিএনপির বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ১৫ পরিবারকে ঘর উপহার

আরও ১ হাজার কোটি টাকা চায় সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২১ মে, ২০২০
  • ৫৮৩ বার

দরিদ্রদের সামাজিক নিরাপত্তা কার্যক্রমের আওতায় ১২ লাখ ৮৩ হাজার মানুষকে সুদমুক্ত ক্ষুদ্রঋণ দিয়েছে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়। আরও ঋণ দিতে অর্থ মন্ত্রণালয়ের কাছে ১ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ চেয়েছে তারা।

বৃহস্পতিবার মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা শাহ আলমের পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সমাজসেবা অধিদফতরের আওতায় ১ লাখ ৯৬ হাজার মানুষকে ত্রাণ হিসেবে খাদ্যসহায়তা ও নগদ অর্থ দেয়া হয়েছে। মন্ত্রণালয় থেকে ৩ কোটি টাকা ও জাতীয় সমাজকল্যাণ পরিষদ থেকে ২৩ দশমিক ৪৭ কোটিসহ মোট ২৬ কোটি ৪৭ লাখ টাকা জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে বিতরণ করা হয়েছে।

সমাজসেবা অধিদফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ব্যক্তিগত অনুদান এবং ৫৬ হাজার নিবন্ধিত স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার অনুদানে ত্রাণকার্য পরিচালনা হচ্ছে। সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন সংস্থার আওতায় ৮০ লাখ ৯ হাজার উপকারভোগীর মধ্যে ভাতা বিতরণের কাজ চলছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে- বয়স্কভাতা কর্মসূচিতে উপকারভোগী ৪৪ লাখ, বিধবা ও স্বামীনিগৃহীতা মহিলাভাতা কর্মসূচিতে ১৭ লাখ, অসচ্ছল প্রতিবন্ধীভাতা কর্মসূচিতে ১৫ লাখ ৪৫ হাজার, প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের শিক্ষা উপবৃত্তি কর্মসূচিতে একলাখ, হিজড়া জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন কর্মসূচিতে ৫ হাজার ৭৬৭ জন সরকারি ভাতা পাচ্ছেন।

পাশাপাশি বেদে জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন কর্মসূচিতে ১০ হাজার, অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন কর্মসূচিতে ৭১ হাজার, চা-শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়ন কর্মসূচিতে উপকারভোগী ৫০ হাজার, ক্যান্সার, কিডনি লিভার সিরোসিস, জন্মগত হৃদরোগী, প্যারালাইজড, থ্যালাসেমিয়া রোগীদের আর্থিক সহায়তাপ্রদান কর্মসূচিতে ৩০ হাজার এবং বেসরকারি এতিমখানায় ক্যাপিটেশন গ্রান্ট প্রদান ৯৭ হাজার ৫০০ জন এ সুবিধা পাচ্ছেন।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়-চলতি অর্থ বছরে প্রায় ১১ লাখ ভাতাভোগী অনলাইনে এ২চ চধুসবহঃ এর মাধ্যমে ভাতা পাচ্ছেন। আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে সব ভাতাভোগীকে এ পদ্ধতির আওতায় আনা হবে। করোনার কারণে সুদমুক্ত ঋণগ্রহীতাদের নিকট থেকে ঋণ আদায় স্থগিত রয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে অর্থবরাদ্দ প্রাপ্তিসাপেক্ষে অতিরিক্ত ঋণ দেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। এ খাতে অতিরিক্ত ১ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দের জন্য অর্থবিভাগের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে। বর্তমানে চলমান সুদমুক্ত ক্ষুদ্রঋণগ্রহীতার সংখ্যা প্রায় ১২ লাখ ৮৩ হাজার জন এবং সুদমুক্ত ক্ষুদ্রঋণ আদায়ের হার গড়ে ৯০ শতাংশ। বর্তমানে সারা দেশে জেলা-উপজেলাপর্যায়ে সর্বমোট ৫২৩টি হাসপাতাল সমাজসেবা ইউনিটের মধ্যে ঢাকা মহানগরীসহ জেলা পর্যায়ে সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ১০৪টি ও উপজেলা পর্যায়ে ৪১৯টি উপজেলা হেলথ কমপ্লেক্সে এই কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়-সুবিধাবঞ্চিত শিশুসুরক্ষা কার্যক্রমের অধীনে ৮৫টি সরকারি শিশু পরিবারসহ বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানে মোট উপকারভোগী রয়েছে ১৭ হাজার। আর ৩ হাজার ৯২০টি বেসরকারি ক্যাপিটেশন গ্রান্টপ্রাপ্ত বেসরকারি এতিমখানায় সাড়ে ৯৭ হাজার শিশু সুবিধা পাচ্ছে।

সূত্র : যুগান্তর

এ জাতীয় আরো সংবাদ