1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. arif_rashid@live.com : Arif Rashid : Arif Rashid
  3. meherunnesa3285@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ০৩:৪৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
সিরাজদিখানে দোকান বাকী না দেওয়ায় শারীরিক প্রতিবন্ধিকে মারধর ।। সংবাদ সংগ্রহ করায় সাংবাদিকের উপর চড়াও! শাহজাদপুরে চিরদিনের জন্য রেখে এলাম আমাদের কলিজার টুকরা ফাহাদ আব্বুকে ‘পুতিন কবে আমাদের রেলভ্রমণ করে গেলেন কেউ জানলাম না’ ভূট্টা চাষে আগ্রহ বেড়েছে কৃষকদের!  কচুর লতি বিক্রি করতে বাজারে বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাপক! পি কে হালদারকে বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তর করবে ভারত এবার আসছে পানযোগ্য স্যানিটাইজার বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটূক্তি: নুরের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে অভিযোগ নুসরাতের রইল না কেউ, সকালে মারা গেলেন মা-বোন বিকেলে বাবা ঘর উপহার পেয়ে আনন্দের বন্যা ভূমি ও গৃহহীন পরিবারের সদস্যদের

বাংলাদেশ-ভারতের নতুন রেলপথ উদ্বোধন করবেন দুই প্রধানমন্ত্রী

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর, ২০২০
  • ২৮৯ বার

বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সর্ম্পক অনেক গভীর-অকৃত্রিম। ভারত বাংলাদেশের উন্নয়নেও সহযোগিতা করছে। ভারতীয় অর্থায়নে বাংলাদেশ রেলে বহু উন্নয়ন প্রকল্প চলমান রয়েছে- ইতোমধ্যে অনেক প্রকল্প সমাপ্তও হয়েছে বলে জানিয়েছেন ভারতের হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী।

বুধবার (২১ অক্টোবর) বিকালে রেলমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজনের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে এসে এসব কথা বলেন হাইকমিশনার।

হাইকমিশনার বলেন- শুধু রেল সেক্টরে নয়, দেশের উন্নয়নে ভারত সরকার সব সময় সহযোগিতা করবে। দু’দেশের মধ্যে যে সৌহার্দ্যপূর্ণ সর্ম্পক রয়েছে তা দিনদিন আরও উন্নত হবে। দু’দেশের সঙ্গে ব্যবসা-বাণিজ্যের আরও উন্নয়ন ঘটাতে চায় ভারত। একইসঙ্গে অর্থনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিকসহ সব ক্ষেত্রে সহযোগিতাও আরও বৃদ্ধি পাবে।

সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে রেলমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন বলেন, ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক আরও শক্তিশালী হচ্ছে। ভারতের সহযোগিতায় রেলওয়েতে অনেকগুলো উন্নয়ন প্রকল্প চলমান রয়েছে। সাক্ষাতে ভারতীয় হাইকমিশনার রেলে আরও সহযোগিতা করা হবে বলে জানিয়েছেন। একইসঙ্গে দু’দেশের মধ্যে বন্ধ হয়ে থাকা রেলপথ দ্রুত সময়ের মধ্যে চালু করার বিষয়েও আলোচনা হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, করোনার কারণে দু’দেশের মধ্যে বন্ধ থাকা ট্রেনগুলোর চালু করা যায় কিনা, কিংবা চালু করতে হলে কী কী করতে হবে- তা নিয়েও আলোচনা হয়েছে। আগামী ১৬ ডিসেম্বরকে সামনে রেখে দু’দেশের মধ্যে চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথ উদ্বোধনের সঙ্গে মালবাহী ট্রেন চালানোর বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। দু’দেশের মধ্যে নতুন রেলপথ ও ট্রেন চলাচলের উদ্বোধন করবেন দু’দেশের প্রধানমন্ত্রী। একইসঙ্গে আগামী ২৬ মার্চকে সামনে রেখে ঢাকা থেকে শিলিগুড়ি পর্যন্ত একটি যাত্রীবাহী ট্রেন উদ্বোধনের পরিকল্পনা নিয়েও আলোচনা হয়েছে।

রেলমন্ত্রী বলেন, পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্প চালু হলে ভারতীয় ট্রেন যশোরের বেনাপোল থেকে সহজে ও কম সময়ে ঢাকায় আসতে পারবে। ভারতীয় হাইকমিশনারের সঙ্গে সিরাজগঞ্জে একটি কন্টেইনার টার্মিনাল ডিপো নির্মাণ বিষয়েও আলোচনা হয়েছে। একইসঙ্গে সৈয়দপুরে একটি নতুন কোচ তৈরির কারখানা নির্মাণ বিষয়ে ভারতের সহযোগিতা থাকবে বলে হাইকমিশনার জানিয়েছেন। বাংলাদেশ রেলওয়েতে ক্যাটারিং সার্ভিস এবং ট্রেনিং একাডেমি উন্নয়নেও আগ্রহ প্রকাশ করেছে ভারত।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- রেলপথ সচিব মো. সেলিম রেজা ও রেলওয়ে মহাপরিচালক মো. শামছুজ্জামান।

এ জাতীয় আরো সংবাদ