1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. arif_rashid@live.com : Arif Rashid : Arif Rashid
  3. meherunnesa3285@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ০৪:৩০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও আমার কিছু কথা।। মোহাম্মদ রোমান হাওলাদার সিরাজদিখানে চাপাতির ভয় দেখিয়ে মোবাইল ছিনতাই, ছাত্রলীগ সভাপতির ভাইসহ গ্রেফতার-৪ সিরাজদিখানে শহীদ মিনারে ফুল দেয়াকে কেন্দ্র করে যুবলীগের নেতা-কর্মীদের মধ্যে মারামারি,ছবি তোলায় দুই সাংবাদিকে পিটিয়ে আহত! সিরাজদিখান প্রেসক্লাবের দুই বছর মেয়াদে নির্বাচন সম্পন্ন সভাপতি মোক্তার সম্পাদক মাসুদ! অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বহু নাটকীয়তার পর বিরোধী দল হওয়ার সিদ্ধান্ত পিটিআইয়ের শান্তর বেতন ৯ লাখ, দেখে নিন কার কত নির্বাচনের পরেই সংসার ভাঙল মাহির কেউ যেন দেশকে পেছনে ঠেলে দিতে না পারে, সতর্ক থাকুন: প্রধানমন্ত্রী বাসচাপায় প্রাণ গেল মা‌-ছেলের

বলিউডে স্বজনপ্রীতিতে নয়, তারকা তৈরি করে দর্শক

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৬ আগস্ট, ২০২০
  • ৬০৭ বার

বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকেই ইন্ডাস্ট্রিতে স্বজনপ্রীতি নিয়ে খুব জল ঘোলা হচ্ছে বলিউডে। অনেক তারকারাও স্বজনপ্রীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছেন। সে তালিকায় আছেন কঙ্গনা রানাউতসহ আরও অনেকেই। যারা সরাসরি দাবি করছেন স্বজনপ্রীতির কারণে বলিউডে মন্দ প্রভাব পড়ছে।

সেই প্রভাবেরই বলি হলেন সুশান্ত। এখানে তারকাদের ছেলে-মেয়ে বা আত্মীয়রা অনেক সুবিধা নিয়ে কাজ করেন। কিন্তু একজন সাধারণ মানুষ বলিউডে কাজ করতে গেলে অনেক রকম সমস্যার সম্মুখীন হন।

এ মন্তব্যের পক্ষে এবং বিপক্ষে অনেক কথাই উঠছে। কিছুদিন আগে সাইফ আলি খান বলেছিলেন, তারকা সন্তান হওয়া সত্ত্বেও কেমনভাবে তিনি নেপোটিজমের শিকার হয়েছিলেন। এবার মুখ খুললেন তার স্ত্রী কারিনা কাপুর খান। তবে কারিনার সুর স্বামীর চেয়ে খানিক আলাদা।

তিনি নিজে নেপোটিজমের শিকার হয়েছেন এমনটা নয়। বরং ঐতিহ্যশালী কাপুর পরিবারের কন্যা হওয়ার সুবাদে খানিকটা সুবিধা পেয়েছেন বলেই মানলেন। তবে সেটাই একজন কারিনা হয়ে উঠার জন্য যথেষ্ট ছিলো না। তাকে পরিশ্রম করতে হয়েছে। অনেক কিছু মানিয়ে নিতে শিখতে হয়েছে।

অন্যদিকে কারিনা এও জানিয়েছেন, বড় ও মজবুত পরিবার থেকে আসলেও তার জন্য নায়িকা হওয়াটা সহজ ছিলো না। কারণ কাপুর পরিবারে একটা সময়ে বাড়ির মেয়েদের সিনেমায় অভিনয় করা নিয়ে আপত্তি ছিল। কারিশমা কাপুর প্রথম সেই প্রথা ভেঙেছিলেন, তারপর করিনা।

এ অভিনেত্রী বলেন, ‘আমি ইন্ডাস্ট্রিতে ২১ বছর ধরে কাজ করছি। স্বজনপোষণের সুবিধা হয়তো পেয়েছি। কিন্তু শুধুমাত্র সেগুলোর জন্য আমি টিকে আছি তা ঠিক নয়। কারণ স্বজনদের শক্তি ব্যবহার করে এত দিন টিকে থাকা যায় না। এমন অনেক তারকা সন্তান আছেন, যারা বিনোদন জগতে সুবিধে করতে পারেননি।’

সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকে তারকা সন্তানেরা আমজনতার রোষের মুখে পড়েছেন। ট্রলিংয়ের জন্য সোনাক্ষী সিংহ, আলিয়া ভাট, সোনম কাপুরেরা ইনস্টাগ্রামে লিমিটেড কমেন্ট করে দিয়েছিলেন। সেই তালিকায় ছিলেন কারিনা কাপুর খানও। সম্প্রতি তিনি সেই ফিল্টার উঠিয়ে দিয়েছেন।

কারিনার ভাষায়, ‘স্ট্রাগল আমাকেও করতে হয়েছে। কিন্তু যে পকেটে দশ টাকা নিয়ে সব ছেড়ে ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করার জন্য এসেছে, তার স্ট্রাগলের তুলনায় আমারটা নগণ্য। কিন্তু তাতে আমার অপরাধবোধে ভোগার অর্থ হয় না। আমাদের তৈরি করেছেন দর্শক। তাদের জন্যই আমরা তারকা। কেন নেপোটিজম নিয়ে এত শোরগোল হচ্ছে জানি না! একটা সিনেমার, একজন অভিনেতার ভবিষ্যৎ কী হবে, শেষ বলবেন দর্শকই।’

নেপোটিজমের উল্টো স্রোতে সফল অভিনেতাদের উদাহরণ দিতে গিয়ে শাহরুখ খান, অক্ষয় কুমার, আয়ুষ্মান খুরানা, রাজকুমার রাওয়ের নাম নেন কারিনা।

এ জাতীয় আরো সংবাদ