1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. arif_rashid@live.com : Arif Rashid : Arif Rashid
  3. meherunnesa3285@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ০২:৩৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
চার দিনের সফরে চীনের পথে প্রধানমন্ত্রী বাকেরগঞ্জে সাংবাদিককে প্রাণনাশের হুমকি দিলেন আ’লীগ নেত্রী রাফির উপহার পেয়ে আবেগাপ্লুত তমা ক্ষুধা মেটেনি রিয়াল সভাপতির, নজর ১৬তম শিরোপায় আমরা দ্বিতীয় স্যাটেলাইটের প্রস্তুতি নিচ্ছি : প্রধানমন্ত্রী পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় ত্রাণ বিতরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী মাহিকে দুটি গাড়ি ও ফ্ল্যাট দিয়েছিলেন আজিজ এমপি আনারের বিষয়ে যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ৬ মাসে ১ দিন কিংবা সাপ্তাহে ১ দিন নয়,২৪ ঘন্টা আমি আপনাদের সেবায় নিয়োজিত থাকতে চাই-মঈনুল হাসান নাহিদ! সিরাজদিখানে ভাইস-চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী রফিকুল ইসলাম বাবুল এর ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়

কেমোথেরাপি ছাড়াই হবে ক্যান্সারের চিকিৎসা: গবেষণা

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২৫ জানুয়ারী, ২০২০
  • ৫৪১ বার

ক্যান্সার একটি জটিল রোগ। এই রোগে প্রতিবছর অনেক মানুষ মারা যায়। এ ছাড়া ক্যান্সারের চিকিৎসা ব্যয়বহুল হওয়ায় অনেক মানুষের পক্ষে স্বাস্থ্যসেবা নেয়া কঠিন হয়ে যায়।

প্রতিনিয়ত ক্যান্সার নিয়ে গবেষণা চালিয়ে আসছেন বিজ্ঞানীরা। ক্যান্সার প্রতিরোধে নেয়া হচ্ছে নানাবিধ উদ্যোগ। এবার ক্যান্সারের চিকিৎসায় সুসংবাদ দিলেন বিজ্ঞানীরা।

বিজ্ঞানীরা এক ধরনের রোগ প্রতিরোধকারী কোষ (টি-সেল) আবিষ্কার করেছেন, যা ক্যান্সার আক্রান্ত কোষকে নিশানা করে তার আক্রমণ ক্ষমতা বা কার্যক্ষমতাকে ধ্বংস করতে সক্ষম।

বিজ্ঞানীদের দাবি, টি-সেল ক্যান্সার থেরাপির সাহায্যে দীর্ঘমেয়াদি চিকিৎসা ছাড়াই একাধিক ধরনের ক্যান্সার কোষকেই ধ্বংস করতে সক্ষম।

টি সেল কী?

টি সেল হলো এক ধরনের শ্বেত রক্তকণিকা। এই শ্বেত রক্তকণিকা শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ও তার (ইমিউন সিস্টেম) কার্যকলাপের অন্যতম অঙ্গ। এই টি-সেল শরীরে প্রবেশ করা ভাইরাস, ব্যাক্টেরিয়া বা ছত্রাকের সংক্রমণকে প্রতিহত করে আমাদের সুস্থতা বজায় রাখে।

টি-সেল ক্যান্সার থেরাপি কী?

বিজ্ঞানীরা কৃত্তিম উপায়ে এ চিকিৎসা চালাবেন। এই রোগ প্রতিরোধকারী টি-সেল বা শ্বেত রক্তকণিকার সংখ্যা বাড়িয়ে সেগুলোকে ক্যান্সারের টিউমার বা ক্যান্সার কোষকে (ম্যালিগন্যান্ট টিউমার) ধ্বংসের উদ্দেশ্যে চালিত করছেন। ফলে কেমোথেরাপি ছাড়াই ক্যান্সার কোষকে ধ্বংস করা সম্ভব হবে।

বিজ্ঞানীরা নতুন ধরনের এই কোষগুলোর নাম দিয়েছেন এমআর-১ (MR1)। তবে এখন পর্যন্ত এই কোষের পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে। এখনও পর্যন্ত পরীক্ষাগারেই ইঁদুর বা মানব কোষের ওপর প্রয়োগ করা হয়েছে এই বিশেষ টি-সেল (MR1)। পরীক্ষা সফলও হয়েছে।
তবে সরাসরি মানবদেহে প্রয়োগের জন্য আরও কয়েক ধাপ পরীক্ষা-নিরীক্ষা প্রয়োজন বলেও জানিয়েছেন তারা। এর পরই আসতে পারে সুসংবাদ।

এ জাতীয় আরো সংবাদ