1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. arif_rashid@live.com : Arif Rashid : Arif Rashid
  3. meherunnesa3285@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
রবিবার, ০৭ অগাস্ট ২০২২, ০৩:৪৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
বঙ্গবন্ধুর মাজার জিয়ারতে সাবেক ছাত্রলীগ ফোরাম! সিরাজদিখানে হামলার ঘটনায় মামলা, সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিককে প্রান নাশের হুমকি! মুন্সীগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের কমিটি বহাল সিরাজদিখানে খালেদা জিয়া ও আব্দুল হাইয়ের রোগমুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত সিরাজদিখানে জুয়া খেলতে বাঁধা দেয়ায় বৃদ্ধের মাথায় কোপ ও মারধর! উন্নত চিকিৎসায় ঢাকায় প্রেরণ। ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতির প্রথম মৃত্যু বার্ষিকীর স্মরণসভায় উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ সিরাজদিখানে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৮ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও সজিব ওয়াজিদ জয়ের জন্মদিন পালন সিরাজদিখানে স্বর্ণের দোকানে চুরির অভিযোগ! সাশ্রয়ী হওয়ার পাশাপাশি খাদ্য উৎপাদনে জোর প্রধানমন্ত্রীর সিরাজদিখানে জাল দলিল করে ভাইয়ের সম্পত্তি বোনের বিক্রি, ফেরৎ চাওয়ায় মারধর!

ভারতের চেয়ে তিন গুণ বড় ঐতিহাসিক প্রতিরক্ষা বাজেট দিল চীন

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৫ মার্চ, ২০২২
  • ৫৬ বার

চীনের প্রতিরক্ষা বাজেট ৭.১ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে এ বছর ১.৪৫ ট্রিলিয়ন ইউয়ান (প্রায় 229 বিলিয়ন মার্কিন ডলার) হবে। করোনাকালীন সংকটময় অর্থনৈতিক সময়ে গত শুক্রবার বেইজিংয়ের ন্যাশনাল পিপলস কংগ্রেসের সভার শুরুতে এই বিশাল বাজেটের ঘোষণা দেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী লি কেকিয়াং। এবারের প্রতিরক্ষা বাজেটটি হবে ভারতের চেয়ে তিন গুন বড়।

প্রতিরক্ষামূলক প্রকৃতির চীন একটি জাতীয় প্রতিরক্ষা নীতি অনুসরণ করে। জাতীয় কংগ্রেসের সভায় রিপোর্টে বলা হয়েছে যে, প্রতিরক্ষা ব্যয় যতই বৃদ্ধি করা হোক বা তার সশস্ত্র বাহিনীকে যত আধুনিক করাই হোক না কেন, চীন কখনই আধিপত্য, প্রভাব বিস্তারের ক্ষেত্র হতে চাইবে না। চীনের এই নীতি আমেরিকার প্রতিরক্ষা নীতির সম্পূর্ণ বিপরীত। চীনের বর্ধিত প্রতিরক্ষা ব্যয় তাদের সামরিক বাহিনীকে উন্নত প্রশিক্ষণ এবং আরও উন্নত সরঞ্জাম সরবরাহ করতে সহায়তা করে। এই বর্ধিত ব্যয় মহামারি এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগের মতো অপ্রচলিত নিরাপত্তা হুমকি মোকাবেলায় সামরিক বাহিনীকে সহায়তা করে।

২০২০ সালে যখন উহান কোভিড-১৯ প্রাদুর্ভাবের দ্বারা প্রবলভাবে আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছিল, তখন চীনা সামরিক বাহিনী মহামারী লড়াইয়ে সহায়তা করার জন্য ৪০০০ জনেরও বেশি চিকিৎসক পাঠিয়েছিল। চীনের জাতীয় প্রতিরক্ষা আইন অনুসারে, সামরিক কর্মীদের জরুরী উদ্ধার এবং দুর্যোগ ত্রাণে অংশ নেওয়ার বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

গত বন্যায় প্লাবিত চীন জুড়ে ৭০০০০ সৈন্য পাঠানো হয়েছিল এবং তারা ২১০০০০-এরও বেশি লোককে উদ্ধার করে নিরাপদে সরিয়ে নিয়েছে এবং প্রায় ৮০০০ রোগীকে চিকিৎসা সেবা দিয়েছে। ২০১৭ সালে, চাইনিজ পিপলস লিবারেশন আর্মি (পিএলএ) ম্যাকাও গ্যারিসন এই অঞ্চলে টাইফুন ধ্বংসযজ্ঞের পর স্থানীয় দুর্যোগ ত্রাণ প্রচেষ্টা জোরদার করতে সৈন্য পাঠিয়েছিল।

চীনের অর্থ মন্ত্রণালয়ের তরফে বলা হয়, দেশের সুরক্ষা ব্যবস্থাকে মজবুত করতে আমরা বদ্ধপরিকর। একই সঙ্গে লালফৌজের আধুনিকরণের বিষয়টিও আমরা যথেষ্ট গুরুত্বের সঙ্গে দেখছি। এই বরাদ্দ বৃদ্ধির ফলে আগামীতে প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার হাত ধরেই চীনের সামগ্রিক অর্থব্যবস্থাও উন্নতির দিকে এগোবে।

এ জাতীয় আরো সংবাদ