1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. arif_rashid@live.com : Arif Rashid : Arif Rashid
  3. meherunnesa3285@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ১১:৪৬ পূর্বাহ্ন

সিরাজদিখানে হাতের কবজি কেটে নেওয়া চাঞ্চল্যকর মামলার প্রধান আসামী নুর আলম গ্রেফতার!

মোহাম্মদ রোমান হাওলাদার
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২৪ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ২৪ বার

মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় স্বতন্ত্র প্রার্থী গোলাম সারোয়ার কবীরের সমর্থক নয়ন (২৩) নামে এক যুবককে কুপিয়ে যখমসহ হাতের কবজি কেটে নেওয়া চাঞ্চল্যকর মামলার প্রধান আসামী মোঃ নুর আলমকে (৩৫) গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১০ এর একটি আভিযানিক দল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত ২৩ জানুয়ারী মঙ্গলবার বিকাল আনুমান সোয়া ৪ টার দিকে জেলার শ্রীনগর উপজেলার গাদিঘাট এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সে চিত্রকোট ইউনিয়নের খালপাড় গ্রামের মৃত হারুনের ছেলে। এর আগে গত ১৬ জানুয়ারী গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া উপজেলার গেমাডাঙ্গা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে মামলার অন্যতম প্রধান আসামী একই গ্রামের মৃত আব্দুল হাদীর ছেলে মোঃ জয়নাল (৩৫)কে গ্রেফতার করে র‌্যাব-১০ এর একটি আভিযানিক দল। পরে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে মামলার প্রধান আসামী মোঃ নুর আলমকে (৩৫) কে গ্রেফতার করা হয়।

জানা যায়, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দিন গত ৭ জানুয়ারী রাত অনুমান ৮ টার দিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী গোলাম সারোয়ার কবীরের সমর্থক ভিকটিম নয়ন (২৩) তার স্ত্রীর জন্য ঔষধ নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে উপজেলার চিত্রকোট ইউনিয়নের খালপাড় ব্রীজ সংলগ্ন এলাকায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থন করার জেরে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে গ্রেফতারকৃত আসামী মোঃ জয়নালসহ তার সাথে থাকা অন্যান্য আসামীরা রাম দা দিয়ে এলোপাথারি ভাবে কুপিয়ে নয়নকে গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে এবং বাম হাতের কবজি কেটে হাত থেকে বিচ্ছিন্ন করে দেয়। পরে হুমকি দিয়ে ভিকটিম নয়নের হাত থেকে বিচ্ছিন্ন কবজি তাদের সাথে নিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে চলে যায়। এ ঘটনায় ভিকটিম নয়নের মা পারভীন আক্তার বাদি হয়ে সিরাজদিখান থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং- ০২। মামলা রুজুর পর পরই চাঞ্চল্যকর কবজি কাটার ঘটনার সাথে জড়িত আসামীরা আত্নগোপনে চলে যায়। পরে র‌্যাব-১০ এর একটি আভিযানিক দল মামলার প্রধান অন্যতম প্রধান আসামী জয়নালকে অভিযান পরিচালনা করে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত জয়নালের দেওয়া তথ্য মতে মোঃ নুর আলমকে গ্রেফতার করে র‌্যাব-১০। র‌্যাবের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মামলার প্রধান আসামী মোঃ নুর আলম নয়ন নামে ওই যুবককের হাতের কবজি কেটে নেওয়ার ঘটনায় সরাসরী জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে এবং সে মামলা রুজুর পর ঢাকা ও মুন্সিগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় আত্মগোপন করে ছিল বলে র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়।

গ্রেফতারকৃত আসামীকে সংশ্লিষ্ট থানায় হস্তান্তরের পর পুলিশের পক্ষ থেকে ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে বুধবার তাকে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে মর্মে র‌্যাব ও পুলিশের সংশ্লিষ্ট সূত্রে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

 

এ জাতীয় আরো সংবাদ