1. successrony@gmail.com : Mehedi Hasan Rony :
  2. arif_rashid@live.com : Arif Rashid : Arif Rashid
  3. meherunnesa3285@gmail.com : Meherun Nesa : Meherun Nesa
সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২, ০৯:৫০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
বঙ্গবন্ধুর মাজার জিয়ারতে সাবেক ছাত্রলীগ ফোরাম! সিরাজদিখানে হামলার ঘটনায় মামলা, সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিককে প্রান নাশের হুমকি! মুন্সীগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের কমিটি বহাল সিরাজদিখানে খালেদা জিয়া ও আব্দুল হাইয়ের রোগমুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত সিরাজদিখানে জুয়া খেলতে বাঁধা দেয়ায় বৃদ্ধের মাথায় কোপ ও মারধর! উন্নত চিকিৎসায় ঢাকায় প্রেরণ। ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতির প্রথম মৃত্যু বার্ষিকীর স্মরণসভায় উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ সিরাজদিখানে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৮ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও সজিব ওয়াজিদ জয়ের জন্মদিন পালন সিরাজদিখানে স্বর্ণের দোকানে চুরির অভিযোগ! সাশ্রয়ী হওয়ার পাশাপাশি খাদ্য উৎপাদনে জোর প্রধানমন্ত্রীর সিরাজদিখানে জাল দলিল করে ভাইয়ের সম্পত্তি বোনের বিক্রি, ফেরৎ চাওয়ায় মারধর!

অস্ট্রেলিয়ায় ৯০হাজারের বেশি প্রাণীর প্রাণ বাঁচিয়েছে আরউইন পরিবার

দিনলিপি নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৬ জানুয়ারী, ২০২০
  • ৩৯০ বার

বন্যপ্রাণী সংরক্ষণে অবদান রেখে বিশ্বজুড়ে সুনাম কুড়িয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার টেলিভিশন উপস্থাপক স্টিভ আরউইন। ২০০৬সালে তাঁর মৃত্যুর পর সেই দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিয়েছে আরউইন পরিবার। স্টিভের মেয়ে বিন্দি আরউইন এবং পরিবারের অন্যরা মিলে এখন পর্যন্ত ৯০হাজারেরও বেশি প্রাণীকে উদ্ধার ও চিকিৎসা দিয়েছেন। অস্ট্রেলিয়ার সাম্প্রতিক দাবানলের ভয়াবহতায় মধ্যেও বহু প্রাণীর উদ্ধার ও সুরক্ষা দিয়ে যাচ্ছে তারা।

কুইন্সল্যান্ড অঙ্গরাজ্যে ‘অস্ট্রেলিয়া জু’ নামের একটি চিড়িয়াখানার পরিচালনা করেন আরউইন পরিবার। সাম্প্রতিক ভয়াবহ দাবানলের সময় আক্রান্ত বহু বন্যপ্রাণীকে এই চিড়িয়াখানায় চিকিৎসা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এক হাজার একরের বেশি জায়গা জুড়ে বিস্তৃত এই চিড়িয়াখানাটি দাবানলে আক্রান্ত হয়নি।

স্টিভ আরউইনের সন্তান রবার্ট আরউইন গত বৃহস্পতিবার ইন্সট্রাগামের এক পোষ্টে লিখেছেন, অস্ট্রেলিয়ার ভয়াবহ দাবানলে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ এবং বন্যপ্রাণীদের জন্য তাঁর হৃদয় কাঁদছে।

বিন্দি আরউইন জানিয়েছেন, অন্য যেকোন সময়ের চেয়ে তাদের বন্যপ্রাণী হাসপাতালটি দাবানলের সময়ে বেশি ব্যস্ত রয়েছে। তিনি বলেন, আমাদের বাবা মা আমাদের অস্ট্রেলিয়া জু ওয়াল্ডলাইফ হাসপাতালটি আমাদের দাদিকে উৎসর্গ করেছেন। বন্যপ্রাণীর সেবা এবং যত সম্ভব তত বন্যপ্রাণীর প্রাণ বাঁচিয়ে যাওয়ার মাধ্যমে আমরা সম্মান জানানো চালিয়ে যাবো।

প্রসঙ্গত, অস্ট্রেলিয়ায় গত সেপ্টেম্বর শুরু হওয়া দাবানলে এখন পর্যন্ত বিভিন্ন প্রজাতির প্রায় ৫০কোটি প্রাণী প্রাণ হারিয়েছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। সিডনি বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস্তুবিদরা আশঙ্কা করছেন, অব্যাহত দাবানলে স্তন্যপায়ী প্রাণী, পাখি ও সরীসৃপ জাতের অন্তত ৪৮ কোটি প্রাণী প্রাণ হারিয়েছে।

এ জাতীয় আরো সংবাদ